DBC News
'এরশাদের মরদেহ রংপুর থেকে আনতে দেয়া হবে না'

'এরশাদের মরদেহ রংপুর থেকে আনতে দেয়া হবে না'

সাবেক রাষ্ট্রপতি, সংসদের বিরোধী দলীয় নেতা ও জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মোহাম্মদ এরশাদের দাফন যেকোনো মূল্যে রংপুরেই করা হবে বলে ঘোষণা দিয়েছেন রংপুর ও রাজশাহী বিভাগের (উত্তরাঞ্চল) নেতারা। এমনকি প্রিয় নেতার মরদেহ ঢাকায় আনা ঠেকাতে জাতীয় পার্টির উত্তরাঞ্চলের নেতারা জীবন দিতে প্রস্তুত বলেও জানান তারা। সোমবার দুপুরে, জাতীয় পার্টির রংপুর কার্যালয়ে নেতাকর্মীদের সঙ্গে বৈঠক শেষে নেতারা এ মন্তব্য করেন।

মহানগর জাতীয় পার্টির সভাপতি ও রংপুরের সিটি মেয়র মোস্তাফিজুর রহমান মোস্তফা হুঁশিয়ারি দিয়ে বলেন, 'জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান পল্লীবন্ধু হুসেইন মোহাম্মদ এরশাদরে মরদেহ রংপুর থেকে নিয়ে যাওয়ার কোনো অপচেষ্টা করা হলে তা প্রতিহত করতে জাতীয় পার্টির লাখো নেতাকর্মী বুকের তাজা রক্ত ঢেলে দেবে, কিন্তু পল্লীবন্ধু এরশাদের মরদেহ রংপুর থেকে কোথাও যাবেনা।'

হুসেইন মোহাম্মদ এরশাদকে বনানীতে দাফনের মধ্য দিয়ে সাধারণ মানুষের কাছ থেকে তাকে বিচ্ছিন্ন করার চক্রান্ত চলছে বলেও মন্তব্য করেন মোস্তফা।

রংপুরে দাফনের বিষয়ে এরশাদের অসিয়ত ছিল উল্লেখ করে তিনি বলেন, 'আমরা চাই হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের স্মৃতিবিজড়িত রংপুর নগরীর দর্শনা মোড়ের পল্লী নিবাসেই তার অসিয়ত করা জায়গায় দাফন করা হোক।'

এদিকে, আজ সংসদ ভবনের দক্ষিণ প্লাজায় জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান ও সাবেক রাষ্ট্রপতি হুসেইন মোহাম্মদ এরশাদের দ্বিতীয় নামাজে জানাজা শেষে রাজধানীর কাকরাইলের দলীয় কার্যালয়ে নেয়া হয়। সেখানে দলীয় নেতাকর্মীদের পাশাপাশি সবস্তরের জনগণ শ্রদ্ধা নিবেদন করেন।

এর আগে, সকালে জাতীয় সংসদে দক্ষিণ প্লাজায় দ্বিতীয় জানাজা অনুষ্ঠিত হয়। জানাজায় রাষ্ট্রপতি আব্দুল হামিদ ছাড়াও জাতীয় পর্যায়ের রাজনৈতিক ব্যক্তিবর্গ অংশ নেন।

সোমবার বিকেলে জাতীয় মসজিদ বায়তুল মোকাররমে তৃতীয় নামাজে জানাজা সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালের হিমঘরে রাখা হয়েছে। এরপর, মঙ্গলবার সকালে হেলিকপ্টারে করে পল্লীবন্ধুর মরদেহ রংপুরে নেয়া হবে। সেখানে সকাল সাড়ে ১০টায় রংপুর ঈদগাহ মাঠে তার শেষ জানাজা অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা রয়েছে। জানাজা শেষে তাঁর মরদেহ হেলিকপ্টারে করে ঢাকায় ফিরিয়ে এনে বাদ জোহর সেনা কবরস্থানে দাফন করার কথা রয়েছে।

প্রসঙ্গত, রবিবার সকাল পোনে আটটায় ঢাকা সম্মিলিত সামরিক হাসপাতাল-সিএমএইচে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান সাবেক রাষ্ট্রপতি ও জাতীয় পার্টির চেয়ার হুসেইন মোহাম্মদ এরশাদ। তিনি রক্তে সংক্রমণ ও লিভার জটিলতাসহ বার্ধক্যজনিত নানা সমস্যায় ভুগছিলেন। জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যানের বয়স হয়েছিল ৮৯।

আরও পড়ুন

সব প্রাথমিক বিদ্যালয়ে এক বেলা খাবার নিশ্চিতের লক্ষ্যে 'জাতীয় স্কুল মিল নীতি' অনুমোদন

পর্যায়ক্রমে ২০২৩ সালের মধ্যে দেশের সব সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের এক বেলা খাবার নিশ্চিত করার লক্ষ্যে ‘জাতীয় স্কুল মিল নীতি ২০১৯’ এর খসড়...

ট্রেনে মাদ্রাসাছাত্রীর মরদেহ উদ্ধার

রাজধানীর কমলাপুরে একটি ট্রেনের ভেতর থেকে এক মাদ্রাসাছাত্রীর মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে।   বিস্তারিত আসছে...

‘আমাকে প্রাণে মেরে ফেলার হুমকি দেয়া হয়েছে’

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদের (ডাকসু) সহ সভাপতি (ভিপি) নুরুল হক দাবি করেছেন, ভিপি হবার পর পাঁচবার তাকে হামলা করেছে ক্ষমতাসীন দলের নেতাকর্মীরা। এজন্য...

'সড়ক দুর্ঘটনা বাড়ার কারণ খোঁজা হবে'

সড়ক দুর্ঘটনা বেড়ে যাওয়ার কারণ খতিয়ে দেখা হবে বলে জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের। সোমবার দুপুরে, রাজধানীর মিরপুর ঝিলপাড়ে আগুনে ক্ষতিগ্রস্ত চ...

বাবাকে হত্যার দায়ে ছেলের মৃত্যুদণ্ড

পারিবারিক কলহের জেরে বাবাকে পিটিয়ে হত্যার দায়ে ছেলে আলতাফ হোসেন খন্দকারকে মৃত্যুদণ্ড দিয়েছেন আদালত। আজ সোমবার দুপুরে, ঝলকাঠির...

তালপাতার পাঠশালায় বর্ণমালা-নামতার পাঠদান

গোপালগঞ্জের প্রত্যন্ত এক গ্রাম। সেখানে পরম আনন্দে শিশুরা শিখছে বর্ণমালা, নামতা। আর, লেখার হাতে খড়ি হচ্ছে তালপাতায় খলখাগড়ার তৈরি কলমে। শুকনো তালপাতা, নলখাগড়ার কল...