DBC News
'ডিআইজি মিজান এবং দুদক পরিচালকের মধ্যে ঘুষ লেনদেনের প্রমাণ মিলেছে'

'ডিআইজি মিজান এবং দুদক পরিচালকের মধ্যে ঘুষ লেনদেনের প্রমাণ মিলেছে'

সাময়িক বরখাস্ত ডিআইজি মিজানুর রহমান এবং দুদক পরিচালক এনামুল বাছিরের মধ্যে ঘুষ লেনদেনের প্রমাণ মিলেছে ন্যাশনাল টেলিকমিউনিকেশন মনিটরিং সিস্টেম-এনটিএমসি'র ফরেনসিক রিপোর্টে। এ প্রতিবেদন যাচাই করে শিগগিরই মামলা করা হবে বলে জানিয়েছেন দুদক কমিশনার ডক্টর মোজাম্মেল হক খান।

দুদকে আসা এনটিএমসি'র প্রতিবেদনে কথোপকথন, পারিপার্শ্বিক পরিস্থিতি ও প্রমাণাদিতে দুই কর্মকর্তার ঘুষ লেনদেনের বিষয়টি স্পষ্ট হয়ে উঠেছে। এসবের ভিত্তিতেই কারাগারে থাকা ডিআইজি মিজান ও বরখাস্ত হওয়া দুদক পরিচালক এনামুল বাছিরকে আসামি করে মামলা হবে। 

দুদক সূত্রে জানা যায়, এ ঘটনায় অনুসন্ধান শেষে আগামী সপ্তাহে মামলার সুপারিশসহ প্রতিবেদন কমিশনে দাখিল হতে পারে। ডিআইজি মিজানের বিরুদ্ধে গত ২৪শে জুন অবৈধ সম্পদের অভিযোগে মামলা করে দুদক। এ মামলা থেকেই অব্যাহতি পেতে দুদকের পরিচালক এনামুল বাছিরকে চল্লিশ লাখ টাকা ঘুষ দেন মিজান। যা অডিও রেকর্ডে ফাঁস হয়।