DBC News
জাকির নায়েককে ভারতে ফেরত পাঠানো সম্ভব নয়: মাহাথির মোহাম্মদ

জাকির নায়েককে ভারতে ফেরত পাঠানো সম্ভব নয়: মাহাথির মোহাম্মদ

ন্যায়বিচার না পাওয়ার আশঙ্কা থাকলে ইসলামি চিন্তাবিদ জাকির নায়েককে ভারতে ফেরত পাঠানো হবে না বলে জানিয়েছেন মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী মাহাথির মোহাম্মদ। এর আগে, ২০১৮ সালেও জাকির নায়েককে ভারতে ফেরত পাঠানোর আনুষ্ঠানিক আবেদন করা হলেও এ বিষয়ে অনিচ্ছা প্রকাশ করেছিলেন মাহাথির মোহাম্মদ।

ভারতের আদালতে অর্থ পাচার ও ধর্মীয় বিদ্বেষ ছড়ানো মাধ্যমে জিহাদি কার্যক্রমে উদ্বুদ্ধ করার অভিযোগ রয়েছে ড. জাকির নায়েকের বিরুদ্ধে। জাকির নায়েকের বিষয়ে মাহাথির মোহাম্মদের উত্তরসূরী আনোয়ার ইব্রাহিমও কয়েক মাস বলেছিলেন, ‘উপযুক্ত প্রমাণ না পেলে জাকির নায়েককে ভারতে ফেরত পাঠাতে চান না তারা।‘

ভারতে জাকির নায়েক সুবিচার পাবেন না এমন আশঙ্কার কথা উল্লেখ করে গতকাল সোমবার মাহাথির মোহাম্মদ সাফ জানিয়ে দিয়েছেন, ‘জাকির নায়েককে ভারতের কাছে হস্তান্তরের অধিকার তার দেশ তাকে দেয়নি।‘ গতকাল সোমবার তিনি মলায়েশিয়ান স্টার অনলাইনকে আরও বলেন, ‘ভারতে ফিরে আইনি লড়াই করলেও ন্যায়বিচার পাবেন না জাকির নায়েক।‘

এদিকে, গেল ৬ই জুন জাকির নায়েকের বিরুদ্ধে অর্থ পাচারের অভিযোগ এনে ইন্টারপোলে আবেদন করার ঘোষণা দিয়েছে ভারতের জাতীয় তদন্ত সংস্থা এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট–ইডি।

এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট–ইডি অর্থ পাচারের অভিযোগে ২০১৬ সালের আরেকটি মামলায় জাকির নায়েকের নাম অন্তর্ভুক্ত করেছে। ওই মামলায় ১৯৩ কোটি ৬ লাখ টাকা পাচারের অভিযোগ আনা হয়। কিন্তু, প্রথমে এ মামলায় জাকির নায়েকের নাম ছিল না।

কিন্তু, মালয়েশিয়া ইন্টারপোলের সদস্য রাষ্ট্র না হওয়ায় এই সংস্থার মাধ্যমে ভারত তাকে ফেরত চাইলেও মালয়েশিয়ার আইন তা অনুমোদন করে না। তাই মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী মাহাথির মোহাম্মদ সেটিই মনে করিয়ে দিয়েছেন।

জাকির নায়েককে কেন ফিরিয়ে দেয়া সম্ভব নয় সেটি উল্লেখ করে মাহাথির মোহাম্মদ অস্ট্রেলিয়ার সঙ্গে তার দেশের একটি তুলনা তুলে ধরে বলেন, ‘২০১৫ সালে মঙ্গোলিয়ান মডেলকে খুন করার অপরাধে মালয়েশিয়ার সাবেক পুলিশ কমান্ডো সিরুল আজহার ওমরের ফাঁসির আদেশ দেয়া হয়। কিন্তু, অস্ট্রেলিয়ায় বসবাসকারী সিরুলকে মালয়েশিয়ার কাছে ফেরত দেয়নি দেশটি। আমরা অস্ট্রেলিয়াকে অনুরোধ করেছিলাম। কিন্তু, তারা ফেরত দেয়নি। কারণ তারা ভয় পেয়েছিল আমরা সিরুল আজহার ওমরকে ফাঁসি দেব।‘

ইতোমধ্যে ভারতে থাকা জাকির নায়েকের সম্পদ বাজেয়াপ্ত করা হয়েছে। বন্ধ করে দেয়া হয়েছে তার প্রতিষ্ঠান। এ অবস্থায় গ্রেপ্তার এড়াতে ২০১৬ সালে ভারত ছাড়েন জাকির নায়েক। এরপর থেকেই মালয়েশিয়াতে অবস্থান করছেন জাকির নায়েক। সেখানে জাকির নায়েককে স্থায়ীভাবে বসবাসের অনুমোদন বা নাগরিকত্ব দিয়েছে মালয়েশিয়া।

তবে, ২০১০ সালে ভারতের সঙ্গে মালয়েশিয়ার বন্দি প্রত্যার্পণ চুক্তি হয়েছে। সেই ভরসাতেই জাকির নায়েককে দেশে ফেরানোর পরিকল্পনা করছে এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট–ইডি।