DBC News
টিভি সম্প্রচারে সম্পূর্ণ প্রস্তুত স্যাটেলাইট

টিভি সম্প্রচারে সম্পূর্ণ প্রস্তুত স্যাটেলাইট

দেশের টিভি চ্যানেলগুলোর সম্প্রচার সেবাদানে বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট সম্পূর্ণ প্রস্তুত। তবে এজন্য নতুন যন্ত্রপাতি কিনতে হবে বলে জানিয়েছে বাংলাদেশ কমিউনিকেশন স্যাটেলাইট কোম্পানি। ইন্টারনেট সংযোগসহ অন্যান্য যোগাযোগে সেবা দেয়ার বিষয়ে একটি চুক্তিও হয়েছে। সব মিলিয়ে ৫ মাসের মধ্যেই পুরোপুরি বাণিজ্যিক কার্যক্রমে আসবে বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট। 

দক্ষিণ এশিয়ার শীর্ষ ফুটবল প্রতিযোগিতা সাফ চ্যাম্পিয়নশিপ। এই আয়োজনের ম্যাচগুলো সরাসরি সম্প্রচার করছে বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট। আর এর মধ্যে দিয়েই দৃশ্যমান হয় মহাকাশে পাঠানো বাংলাদেশের প্রথম উপগ্রহের কার্যক্রম ও সক্ষমতা।

বাংলাদেশ কমিউনিকেশন স্যাটেলাইট কোম্পানির চেয়ারম্যান ড. শাহজাহান মাহমুদ বলেন, 'টেলিভিশন স্টেশনগুলো থেকে আমরা যে মতামত বা ফিডব্যক পেয়েছি তাতে তারা প্রশংসা করে বলেছেন এর মান চমৎকার।'

এদিকে বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইটের টেস্ট সিগন্যাল পরীক্ষা করে প্রাথমিক সন্তুষ্টির কথা জানিয়েছে বাংলাদেশ ব্রডকাস্টার্স এ্যাসোসিয়েশন।

বাংলাদেশ ব্রডকাস্টার্স এ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক হামিদ উল্ল্যাহ মুকুল বলেন, 'সিগনাল লেভেলে যা পেয়েছি, তাতে আমরা সন্তুষ্ট। যেহেতু ছবিটা স্ট্যন্ডার্ড ডেফিনেশনে আসছে, এটা বিটিভির একটি এএসআই সিগনাল। স্ট্যন্ডার্ড ডেফিনেশন সিগনাল না পেলে আমরা বলতে পারবো না ছবির মান কেমন হবে। সিগনালের মান দেখে আমার মনে হচ্ছে, স্ট্যন্ডার্ড ডেফিনেশন হোক আর হাই ডেফিনেশন হোক অবশ্যই সেটা সফল হবে।'

বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইটের মাধ্যমে সম্প্রচারে যেতে নতুন যন্ত্র লাগবে দেশের টিভি স্টেশনগুলোর। এছাড়া অন্যান্য প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে চুক্তির জন্য আলোচনাও চলছে।

ড. শাহজাহান মাহমুদ আরও বলেন, 'এখন যদি টিভিগুলোকে বলা হয় এন্টেনাটা বাংলাদেশ স্যাটেলাইটের দিকে তাক করতে, তাহলে কিছু আধুনিক যন্ত্রপাতি লাগবে। এতে প্রতি টিভি স্টেশনের প্রায় ৪০ থেকে ৫০ হাজার ডলারের মত খরচ হবে কিন্তু সময় লাগবে।'

তিনি বলেন, 'তবে এছাড়া আমরা এর বিকল্পটাও ভাবছি, যেটাতে হয়তো এত খরচ লাগবে না। সেক্ষেত্রে তার দিয়ে গাজিপুরের সঙ্গে সংযোগ করতে যতটুকু সময় লাগবে। আমরা এরইমধ্যে নৌপরিবহণ সংস্থার সঙ্গে চুক্তি করেছি। আমরা প্রতি মাসেই কিছু কিছু চুক্তি সই করবো।’

এখন স্যাটেলাইটের মার্কেটিং পলিসি জোরদারের পরামর্শ দিয়েছেন গবেষকরা। 

ব্রাক অন্বেষা ন্যানো স্যাটেলাইট প্রকল্পের মূখ্য গবেষক ড. খলিলুর রহমান বলেন, 'আমাদের স্যাটেলাইটে একটা বিশাল অংকের টাকা খরচ হয়েছে। এশিয়ার এই দিকটাতে আমাদের একটা বড় মার্কেট আছে। মার্কেটিং পলিসিটা খুবই আধুনিক হওয়া উচিত। এবং এটা থেকে যেন সর্বোচ্চ সুবিধাটা পাওয়া যায় তা নির্ধারণ করা উচিত।’

বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইটে আছে ৪০টি ট্রান্সপন্ডার। একটি ট্রান্সপন্ডার থেকে একসঙ্গে প্রায় ৯টি টিভি চ্যানেল সম্প্রচার সুবিধা নিতে পারবে।

আরও পড়ুন

'মালয়েশিয়ায়  শ্রমিক পাঠাবে  সব এজেন্সি'

এখন থেকে বাংলাদেশের সকল বৈধ রিক্রুটিং এজেন্সি মালয়েশিয়ায় বাংলাদেশি শ্রমিক পাঠাতে পারবে।  একথা জানিয়েছেন প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রী নুরুল...

ঐক্যের বৈঠকে যাননি ড. কামাল

ডা. একিউএম বদরুদ্দোজা চৌধুরীর বাসায় বৃহত্তর ঐক্যের বৈঠকে যোগ দেননি জাতীয় ঐক্য প্রক্রিয়ার আহবায়ক ড. কামাল হোসেন। মঙ্গলবার সন্ধ্যা ছয়টার দিকে এ বৈঠক শুরু হয়।...

‘মোবাইল ফোন নম্বর একই থাকলেও, বদলে যাচ্ছে অপারেটর’ 

মোবাইল ফোনের নম্বর একই থাকবে, বদলে যাবে অপারেটর।  আগামী মাসের শুরুতেই চালু হচ্ছে মোবাইল নম্বর পোর্টেবেলিটি বা এমএনপি নামের এই সেবা।  নিজেদের সম্পূর্ণ...

অনলাইনে গুজব বন্ধে কনটেন্ট নিয়ন্ত্রণের উদ্যোগ

অনলাইনে গুজব ছড়িয়ে অপরাধ বন্ধের লক্ষ্যে ফেইসবুকের কনটেন্ট মনিটরিং ও নিয়ন্ত্রণের উদ্যোগ নিয়েছে সরকার। তিন মাসের মধ্যে এই প্রকল্প বাস্তবায়ন শুরু হবে বলেও জানিয়েছে...