DBC News
৩০ বছরের মধ্যে সবচেয়ে বেশি নদী ভাঙনের মুখোমুখি বরিশাল

৩০ বছরের মধ্যে সবচেয়ে বেশি নদী ভাঙনের মুখোমুখি বরিশাল

গত ৩০ বছরের মধ্যে সবচেয়ে বেশি নদী ভাঙনের মুখোমুখি হয়েছে বরিশাল। পানি উন্নয়ন বোর্ডের জরিপে ৫০টি স্পটও চিহ্নিত করা হয়েছে গুরুতর ভাঙন কবলিত এলাকা হিসেবে। শতাধিক পরিবার এরই মধ্যে গৃহহীন গয়েছে। সহায়তা না মেলায় ক্ষুব্ধ তারা।

৭০ বছর বয়সী জয়নাল মোল্লার জন্ম, বেড়ে ওঠা কীর্তনখোলার তীরেই। বাপ-দাদার যে ভিটেয় তার সন্তানরাও বেড়ে উঠেছে, তা আজ নদীগর্ভে। ভিটে-মাটি হারিয়ে আজ তিনি নিঃস্ব।

তার মতোই ঘরহারা বরিশাল শহরের সবচেয়ে কাছের ইউনিয়ন চরকাউয়ার কয়েকশো পরিবার। নদীতে বিলীন হয়েছে জেলার বেশ কয়েকটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানও।

বরিশাল-ঢাকা মহাসড়কের সুগন্ধা নদীর ওপর দোয়ারিকা শিকারপুর সেতুও রয়েছে চরম ঝুঁকিতে। ভাঙন ঠেকাতে কার্যকরী পদক্ষেপ না নেয়ার অভিযোগ ভূক্তভোগীদের।

ব্যক্তিগতভাবে সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিয়েছেন কেউ কেউ। এদিকে, বরিশাল সমাজ কল্যান সংস্থার প্রধান সমন্বয়ক এম এ মালেকের দাবি প্রশাসনের পক্ষ থেকে বেশ কিছু উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। তিনি জানান, প্রায় ২০ হাজার মহিলাকে স্বালম্বি করা হয়েছে, গৃহহীনদের দেয়া হয়েছে ঢেউটিন।  

বরিশাল পানি উন্নয়ন বোর্ড এর তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী জয়নাল মোল্লা বলেন, 'আমরা যেখানে ভাঙনের খবর পাচ্ছি সেখানে যাচ্ছি এবং ব্যবস্থা নিচ্ছি।'   

নদী ভাঙন রোধে পদক্ষেপ নেয়ার পাশাপাশি ভূক্তভোগীদের পাশে দাঁড়াবে প্রশাসন এমনটাই প্রত্যাশা দুর্গতদের।