DBC News
নির্বাচনকে ঘিরে সরব আওয়ামী লীগ-বিএনপির একাধিক প্রার্থী

নির্বাচনকে ঘিরে সরব আওয়ামী লীগ-বিএনপির একাধিক প্রার্থী

জাতীয় নির্বাচনকে ঘিরে সিলেট-১ আসনে সরব আওয়ামী লীগ-বিএনপির একাধিক প্রার্থী। কিছুদিন আগে হয়ে যাওয়া সিটি নির্বাচনের পর পাল্টে গেছে গুরুত্বপূর্ণ এই আসনে দলীয় ভোটের হিসাবনিকাশ।

সিলেট সিটি কর্পোরেশনের ২৭টি ওয়ার্ড, সিলেট সদর ও কোম্পানীগঞ্জের একাংশ নিয়ে গঠিত সিলেট-১ আসন। ১৯৯০ সাল থেকে এই আসনে যে দলের প্রার্থী জয়ী হয়েছেন, সেই দলই সরকার গঠন করেছে। 

অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে এই আসনে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হন। নবম সংসদ নির্বাচনে মুহিত এক লাখ ৭২ হাজার ৮১৩ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হন এবং আর তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী সাবেক অর্থ ও পরিকল্পনামন্ত্রী এম সাইফুর রহমান পেয়েছিলেন এক লাখ ৩৫ হাজার ২১৩ ভোট।

মাসখানেক আগে হয়ে যাওয়া সিটি নির্বাচনে বিএনপি প্রার্থীর বিজয় আর আগামীতে অর্থমন্ত্রীর প্রতিদ্বন্দ্বিতা না করায় ঘোষণা নতুন করে ভাবাচ্ছে আওয়ামী লীগকে।

এ অবস্থায় আওয়ামী লীগের মনোনয়ন আশা করছেন অর্থমন্ত্রীর ছোটভাই এবং জাতিসংঘের সাবেক স্থায়ী প্রতিনিধি ডক্টর এ কে আবুল মোমেন আর কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক অ্যাডভোকেট মিসবাহউদ্দিন সিরাজ। 

সিলেট মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি বদর উদ্দিন আহমেদ কামরান বলেন, 'এ আসনে বিএনপির প্রার্থী যেই আসুক না কেনো, আমরা যে উন্নয়ন করেছি তার ভিত্তিতে আমাদের দল যাকেই মনোনয়ন দিক সেই নির্বাচিত হবে।'

আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক অ্যাডভোকেট মিসবাহউদ্দিন সিরাজ জানান, '৪৫ বছরের রাজনৈতিক জীবনে যতটুকু পেরেছি মানুষের সেবা করেছি। তাই এবার সবার দোয়া নিয়ে আমি মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর কাছে এই আসন থেকে মনোনয়ন চাইবো।'
 
অন্যদিকে সিটি নির্বাচনে দলীয় প্রার্থী জয়ী হলেও অভ্যন্তরীণ কোন্দলে স্বস্তিতে নেই বিএনপিও। এতোদিন একক প্রার্থী হিসেবে বিএনপি চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা খন্দকার আব্দুল মুক্তাদির সক্রিয় থাকলেও, সম্প্রতি মনোনয়ন প্রত্যাশী হিসেবে শোনা যাচ্ছে আরো কয়েকজন নেতার নাম।

বিএনপি চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা খন্দকার আব্দুল মুক্তাদির বলেন, যদি দল তাকে এই আসন থেকে মনোনয়ন দেয়, তিনি দলের একনিষ্ঠ কর্মী হিসেবে দায়িত্ব পালন করতে প্রস্তুত আছেন।

মহানগর বিএনপির সাবেক সভাপতি ডা: শাহরিয়ার হোসেন বলেন, 'শুধু রাজনৈতিক পদ নয়, জনগণের সাথে সম্পৃক্ততা এবং কাজের হিসেবে এ আসন থেকে আমি মনোনয়ন পাওয়ার যোগ্যতা রাখি।'

অপরদিকে বর্তমান বিরোধী দল জাতীয় পার্টি থেকে এই আসনে প্রার্থী হতে পারেন দলটির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ। সর্বশেষ সিলেট সফরে এসে নগরীর রেজিস্ট্রারি মাঠের জনসভায় এরশাদ নিজে এ আসন থেকে নির্বাচন করবেন বলে ঘোষণা দেন। এ সময় তিনি সিলেটকে নিজের দ্বিতীয় বাড়ি হিসবেও অভিহিত করেন।
 
১০টি সংসদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগ ৪ বার,  বিএনপি ৪ বার ও জাতীয় পার্টির প্রার্থী ২ বার এই আসনে জয়ী হয়েছে।