DBC News
বিদ্যুৎ উৎপাদনের ৪৩ শতাংশ বেসরকারি খাতের

বিদ্যুৎ উৎপাদনের ৪৩ শতাংশ বেসরকারি খাতের

দেশের মোট বিদ্যুৎ উৎপাদন ক্ষমতার ৪৩ শতাংশই বেসরকারি খাতের। গেল ১০ বছরে বেসরকারি খাত থেকে উৎপাদনে এসেছে ৬৫টি বিদ্যুৎকেন্দ্র। আর নির্মাণাধীন ৫৫টি বিদ্যুৎকেন্দ্রের বেশিরভাগই বেসরকারি খাতের। বিশেষজ্ঞদের আশংকা উৎপাদন ক্ষমতার অর্ধেকের বেশি বেসরকারি খাতের হয়ে গেলে বেকায়দায় পড়তে পারে বিদ্যুৎ খাত।

আগস্ট মাসে, গাজীপুরের কড্ডায় ৩০০ মেগাওয়াট ক্ষমতার একটি চালু করে বেসরকারি প্রতিষ্ঠান সামিট পাওয়ার। শুধু সামিটেরই মোট ৯৭৬ মেগাওয়াট ক্ষমতার ১৫টি বিদ্যুৎ কেন্দ্র রয়েছে সারাদেশে। 

এই মুহূর্তে দেশের মোট বিদ্যুৎ উৎপাদন ক্ষমতা ১৫ হাজার ৮৫৯ মেগাওয়াট। যার ৬ হাজার ৮৭৭ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ যোগান দেয়ার সামর্থ্য রাখে বেসরকারি প্রতিষ্ঠানগুলো। উৎপাদনে রয়েছে দেশি-বিদেশী অর্ধশত কোম্পানি।

এর বাইরে তৈরি হচ্ছে ৫৫টি বিদ্যুৎকেন্দ্র, যার ৩৯টি কেন্দ্রই বেসরকারি উদ্যোগের। এগুলোর কাজ শেষ হলে মোট উৎপাদন ক্ষমতা দাঁড়াবে ৭ হাজার ৪৩ মেগাওয়াট। আর বেসরকারি খাতের অংশীদারিত্ব দাঁড়াবে ৫১ শতাংশে। তারপর দরপত্র প্রক্রিয়াধীন আরও ১৯টি কেন্দ্রের। ফানের্স ওয়েল, গ্যাস নির্ভরতার পাশাপাশি নতুন কয়েকটি বিদ্যুৎকেন্দ্র হবে সৌরশক্তি নির্ভর।

জ্বালানি বিশেষজ্ঞ ড. ইজাজ হোসেন বলেন, 'বিদ্যুৎক্ষেত্রে প্রাইভেট সেক্টরকে এত বেশি প্রাধান্য দিলে আমরা অর্থনৈতিক এবং এনার্জি ইনসিকি্‌উরিটির মধ্যে চলে আসতে পারি। আমাদেরকে সব সময় লক্ষ্য রাখতে হবে পঞ্চাশ ভাগ বিদ্যুত যাতে প্রাইভেট খাত উৎপাদন না করে। আমাদের সরকারি বিদ্যুৎ কেন্দ্রগুলো যেন সাফার না করে।'

বিদ্যুৎখাতের মত জ্বালানিতেও বেসরকারি অংশীদারিত্ব বড় হচ্ছে। সাগরে ভাসমান এলএনজি টার্মিনাল থেকে জ্বালানি সরবরাহে যুক্ত হচ্ছে দেশি-বিদেশি কোম্পানি।

জ্বালানি বিশেষজ্ঞ অধ্যাপক বদরূল ইমাম বলেন, 'আমরা এতদিন গ্যাসের ওপর নিরর্ভরশীল ছিলাম। পুরোপুরি দেশীয় গ্যাসের ওপর নিরর্ভরশীল ছিলাম। বিদেশিদের ওপর অতটা নিরর্ভরশীলতা ছিল না। কিন্তু এখন দেখা যাচ্ছে বিদেশ থেকে আমদানি করা এলএনজি আমাদেরকে ডমিনেট করবে। এর সঙ্গে যেটা বাড়বে, সেটা আমদানি করা কয়লা। অদূর ভবিৎষ্যতে আমরা নব্বই শতাংশ বা তারও বেশি জ্বালানি খাতে আমদানী নির্ভরশীল হয়ে পড়বো।'

অনুসন্ধান ও উত্তোলনে দক্ষতা অর্জন করতে পারলে চাহিদার বড় অংশই নিজেদের জ্বালানি দিয়ে পূরণ করা সম্ভব বলেও মনে করেন তিনি।

আরও পড়ুন

কারাগার থেকে মুক্তি পেলেন আলোকচিত্রী শহিদুল আলম

১০৭ দিন কারাভোগের পর মুক্তি পেয়েছেন আলোকচিত্রী ড. শহিদুল আলম। মঙ্গলবার রাত পোনে ৯টার দিকে কেরানীগঞ্জের ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগার থেকে জামিনে মুক্তি পান ড. শহিদুল আ...

'বর্ণচোরাদের ব্যালটের মাধ্যমে প্রত্যাখান করবে জনগণ'

যাঁরা এখনো মুজিব কোট পড়েন, বঙ্গবন্ধুর কথা বলেন, তাঁরা বঙ্গবন্ধুর খুনিদের সঙ্গে এবং খুনিদের পৃষ্ঠপোষকদের সঙ্গে হাত মিলিয়েছেন। এর বিচার ৩০শে ডিসেম্বর দেশের জনগণ ত...

বিনিয়োগকারীদের লভ্যাংশ না দেয়ায় তদন্ত করছে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ

দীর্ঘ সময় বিনিয়োগকারীদের লভ্যাংশ দিচ্ছে না এমন প্রতিষ্ঠান সম্পর্কে তদন্ত করছে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ। এর মধ্যে আর্থিকভাবে দুর্বল ৫টি কোম্পানির কার্যক্রম সরেজমিনে প...

এক দশকে উন্নয়ন বাজেট বেড়েছে প্রায় ৬ গুণ

গেল ১০ বছরে বাজেট চার গুণ বাড়লেও উন্নয়ন বাজেটের আকার বেড়েছে প্রায় ৬ গুণ। ভৌত অবকাঠামো থেকে শুরু করে আর্থ সামাজিক উন্নয়নে সরকার বড় অংকের টাকা খরচ করেছে। ফলে তা ভ...