DBC News
সুদের হার কার্যকর করছে না ব্যাংকগুলো

সুদের হার কার্যকর করছে না ব্যাংকগুলো

দুই দফা সময় বাড়ানো হলেও দেশের বেশ কিছু ব্যাংক কার্যকর করছে না নতুন সুদের হার। ব্যাংকে রক্ষিত গ্রাহক আমানতের জন্য ৬ শতাংশ সুদের হার বাস্তবায়ন হলেও ঋণের জন্য ৯ শতাংশ সুদ হার কার্যকর করছে না অনেক ব্যাংক। তবে, এসব বিষয়ে ব্যবসায়ীদের বিরুদ্ধে অভিযোগ পেলেই কঠোর পদক্ষেপ নেয়ার কথা জানিয়েছেন বাংলাদেশ ব্যাংকের মুখপাত্র।

১লা জুলাই থেকে নতুন সুদের হার কার্যকরের এমন র্নিদেশনা আগেই দেয়া ছিল। কিন্তু তা কার্যকর না হওয়ায়, আবারো ৯ আগস্ট পর্যন্ত সময় বাড়িয়ে দেয়া হয়। দুই দফা সময় দেয়ার পরও, কোন ব্যাংক কি মানছে এমন শর্ত? প্রশ্ন তোলেন এই মুখাপাত্র। 

এদিকে সীমান্ত ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মুখলেসুর রহমান বলেন, 'এই নয় আর ছয় এর মধ্যে নিয়ে আসা, এটা আমরা করে ফেলেছি, আমরা এটা কার্যকরও করছি। কিন্তু এটা ইমিডিয়েটলি করা খুবই কষ্টকর, তবে এটা ধীরে ধীরে কমবে।'  

সোনালী ব্যাংক এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক মো: ওবায়েদ উল্লাহ আল মাসুদ বলেন, 'আমাদের যে লোনের পোর্টফলিও, তাতে আমাদের ৭৮ শতাংশ ইতিমধ্যেই ওয়ান ডিজিটে ছিলো। আমাদের ফাইট করতে হয়েছে মাত্র ২৮ শতাংশের জন্য।' 

অগ্রণী ব্যাংক পরিচালনা পর্ষদ এর সদস্য হাসিনা নেওয়াজ জানান, 'কিছু ব্যাংক তাদের সুদের হার ৯ শতাংশে নামিয়ে এনেছে। বাকী কিছু ব্যাংক সুদের হার নামিয়ে আনতে কাজ করছে।'

বিভিন্ন ব্যাংকের ওয়েবসাইট থেকে সরিয়ে ফেলা হয়েছে টার্ম লোন এবং মিডিয়াম স্কেল ইন্ড্রাস্টি লোন এর সুদের হার। বাংলাদেশ ব্যাংকের তথ্য মতে, এখন পর্যন্ত ৫৮ টি ব্যাংকের মধ্যে ৩৬ ব্যাংক ছাড়া বাকি ব্যাংক গুলো বাস্তবায়ন করছে ৯ শতাংশ সুদ হার।

এফবিসিসিআই এর সভাপতি শফিউল ইসলাম মহিউদ্দিন বলেন, 'সুদের হার নামিয়ে আনা পার্শিয়ালি পাচ্ছি, এখনো ফুললি ইম্পলিমেন্টেড হয়নি। এটা বাস্তবায়ন করতে হবে। যৌক্তিক সমাধানের পথ খুঁজতেই হবে। এছাড়া ফিউচারে আমাদের ইনভেস্টমেন্ট হবে না।'    

আমানত গ্রহণে ৬ শতাংশ সুদ কার্যকর হলেও হয়নি ঋণের ক্ষেত্রে ৯ শতাংশ সুদ হার। যেসব ব্যাংক এই সিদ্ধান্ত মানবে না তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেবে কেন্দ্রীয় ব্যাংক।

বাংলাদেশ ব্যাংক এর মুখপাত্র মো: সিরাজুল ইসলাম বলেন, 'বাংলাদেশ ব্যাংক এ এসে তারা কমিটমেন্ট করেছে। সব ব্যাংক এর এমডি এবং সিইও এসে কমিটমেন্ট করে গেছেন। এখন আমরা অবজারভেশনে আছি, তারা যে কমিটমেন্ট করেছে তা ফুলফিল করতে পারছে কি না। কোনো গ্রাহক যদি আমাদের কাছে অভিযোগ করে, তাহলে বাংলাদেশ ব্যাংক অবশ্যই ব্যবস্থা নেবে।'
 
ব্যবসায়ী এবং অর্থনীতির বিশ্লেষকরা বলছেন, দেশে অর্থনীতি ও উন্নয়নের ধারা চাঙ্গা করতে হলে সব ব্যাংকেই মানতে হবে ৯ শতাংশ সুদের হার।