DBC News
'খোদা কি ওয়াস্তে হামে বাংলাদেশ বানা দো'

'খোদা কি ওয়াস্তে হামে বাংলাদেশ বানা দো'

পাকিস্তানের নতুন প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান তার দেশে উন্নয়ন ঘটানোর জন্য ব্যাপক তৎপরতা শুরু করেছেন। তবে এজন্য তাকে বাংলাদেশের উন্নয়ন মডেল অনুসরণের পরামর্শ দিয়েছেন পাকিস্তানের এক বুদ্ধিজীবী। 

সম্প্রতি ইমরানের দল পিটিআইয়ের পক্ষে বলা হয়েছে-দুনিয়ার শীর্ষ উন্নত দেশ সুইডেনের মডেলে পাকিস্তানের উন্নয়ন ঘটাবেন তিনি। এমন দাবির জবাবে সম্প্রতি পাকিস্তানের ক্যাপিটাল টিভির 'আওয়াম' নামের টক শোতে ইমরানকে দেশের উন্নয়নের জন্য সুইডেন বাদ দিয়ে আগে বাংলাদেশকে অনুসরণের পরামর্শ দেন বিশিষ্ট সাংবাদিক ও কলামিস্ট জাইঘাম খান। 

উর্দু ভাষায় ওই টিভি শো'র ভিডিও ক্লিপ এখন স্যোশাল মিডিয়াতেও আলোচনার ঝড় তুলেছে। এতে দেখা যায় জাইঘাম খান বাংলাদেশের উন্নয়নের ব্যাপক প্রশংসা করেন। তিনি ইসলামাবাদ এক্সচেঞ্জের দুর্বল অবস্থান বোঝাতে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের উদাহরণও দেন। 

'আওয়াম' নামের ওই অনুষ্ঠানে বাংলাদেশের উন্নয়নের ভূয়সী প্রশংসা এবং একই সঙ্গে তাদের নিজেদের পিছিয়ে পড়ার জন্য আফসোাস করতে দেখা গেছে আলোচকদের। বিশেষ করে জাইঘাম খানের বক্তব্যের ভিডিও ক্লিপ বেশ শেয়ার হচ্ছে বাংলাদেশের স্যোশাল মিডিয়া ব্যবহারকারীদের মধ্যে।

উর্দু ভাষায় ধারণ করা ওই টকশোতে জাইঘাম খানের বাংলাদেশে বিষয়ক অংশটুকুর বাংলা ভাষান্তর করলে যা দাড়ায়- 

অনুষ্ঠানে জাইঘাম খান বলেন, 'দেখুন পিটিআইয়ের সবচেয়ে সরলসিধা কথাটি এবং একই সঙ্গে যা তাদের সবচেয়ে শক্তিশালী অস্ত্র ছিল-তা হচ্ছে থিওরি অব চেঞ্জ অর্থাৎ.. পরিবর্তন তত্ত্ব। কোন তরিকায় পাকিস্তান বদলাবে? আর এতে দু'টি বিষয় আছে। তার পিলার হচ্ছে দু'টি-এক নম্বরটি হচ্ছে এর নেতা। এমন নেতৃত্ব যা দুর্নীতিমু্ক্ত হবে।'

তিনি বলেন, 'দ্বিতীয় যে বিষয়টি ছিল তা হচ্ছে, পাকিস্তানের যা কিছু আছে তা সবই দুর্নীতিতে মগ্ন। দুর্নীতিমুক্ত হলেই দেশ ঠিক হয়ে যাবে! কিন্তু তা খুব সহজ কাজ নয়। আধুনিক রাষ্ট্র একটি জটিল বিষয়, আধুনিক সমাজও বেশ জটিল, আর আধুনিক অর্থনীতিতে খুব জটিল একটি বিষয়।

'তিনি বলেন,আমাদের চেয়ে অনেক দুর্নীতিপ্রবণ দেশও উন্নতিতে আমাদের চেয়ে এখন অনেক এগিয়ে রয়েছে। ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনালের ইনডেস্কে এক সময় আমাদের চেয়ে ২৪ ধাপ নিচে ছিল বাংলাদেশ। কিন্তু এখন তারা এত উন্নতি করছে যে ইমরান খানের পিটিআই যদি পাকিস্তানের সবকিছু ঠিক করেও ফেলে তবুও বাংলাদেশের সমকক্ষ হতে আমাদের আরও দশ বছর প্রয়োজন।'

তিনি বলেন, 'বাংলাদেশ যখন ৪০ বিলিয়ন ডলার এক্সপোর্ট করে, পাকিস্তান তখন ২২ বিলিয়ন ডলার এক্সপোর্ট করে। আর তাদের বার্ষিক উন্নয়নের গতিও দ্রুততর। তবে আমরা যদি তাদের সমান গতিতে উন্নয়ন করতে থাকি, উন্নয়নের গতি বাড়াাই... তাদের জিডিপি ৭ শতাংশ-এ আছে আর আমরা তাদের ছাড়িয়ে ৯ শতাংশ থেকে ১০ শতাংশ জিডিপি উন্নয়ন করে ফেলবো-এমনটা কিন্তু অসম্ভব। '

তিনি বলেন,'আরে...আল্লাহর ওয়াস্তে আমাদের বাংলাদেশ বানিয়ে দাও। আমরা ইমরান খানের কাছে কৃতজ্ঞ হয়ে যাবো ৫ বছর না, অন্তত্বপক্ষে দশ বছরেও যদি আমাদের বাংলাদেশের স্তরে নিয়ে যেতে পারেন তিনি। সেটাও হওয়ার নয়।'