DBC News
ডব্লিউ টি ও'কে  ট্রাম্পের হুঁশিয়ারি

ডব্লিউ টি ও'কে  ট্রাম্পের হুঁশিয়ারি

বিশ্ব বাণিজ্য সংস্থা যদি যুক্তরাষ্ট্রকে সঠিকভাবে মূল্যায়নে ব্যর্থ হয়, তবে দেশটি এর সদস্যপদ প্রত্যাহার করবে বলে হুঁশিয়ারি দিয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। 

এ সময় নিজ প্রশাসনের বাণিজ্যনীতি ও সংস্থাটির মুক্ত বাণিজ্য পদ্ধতির বিভেদের কথাও তুলে ধরেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট। এদিকে, যুক্তরাষ্ট্রের সার্বভৌমত্বে বিশ্ব বাণিজ্য সংস্থা হস্তক্ষেপ করছে বলে অভিযোগ করেছেন মার্কিন বাণিজ্য প্রতিনিধি রবার্ট লাইথাইজার। মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হওয়ার আগেও ট্রাম্প সংস্থাটির বাণিজ্য নীতির নিরপেক্ষতা নিয়ে বার বার প্রশ্ন তুলেছেন।  

সম্প্রতি যুক্তরাষ্ট্র চীনসহ বিভিন্ন দেশের সঙ্গে বাণিজ্যযুদ্ধে জড়িয়ে পড়েছে। এসব বিরোধের সমাধানে বিশ্ব বাণিজ্য সংস্থা কোন কার্যকর উদ্দ্যোগ গ্রহণ না করায় ট্রাম্প এই হুঁশিয়ারি দিলেন।

এর আগে, গত জুলাই মাসে ব্রিটিশ বার্তা সংস্থা রয়টার্সের এক প্রতিবেদনে বিশ্ব বাণিজ্য সংস্থা যুক্তরাষ্ট্রের বিরুদ্ধে বৈষম্যমূলক আচরণ করছে বলে অভিযোগ করে ট্রাম্প।

প্রতিবেদনে বলা হয়, ট্রাম্প প্রায়ই অভিযোগ করেন যে বৈশ্বিক বাণিজ্যে যুক্তরাষ্ট্র বৈষম্যের শিকার হয়। বেশ কিছু সংবাদমাধ্যমের প্রতিবেদনে দাবি করা হয় যে, ট্রাম্প বিশ্ব বাণিজ্যের নিয়ন্ত্রক সংস্থা থেকে সরে আসারও হুমকি দিয়েছেন।

তবে ট্রাম্প বলেন, ‘আমরা এখনই কোনও পরিকল্পনা করছি না। তবে তারা আমাদের মূল্যায়ন না করলে অবশ্যই আমরা পদক্ষেপ নেবো।’

সংবাদমাধ্যম আজিও জানায়, ওয়ার্ল্ড ট্রেড অরগানাইজেশন বা বিশ্ব বাণিজ্য সংস্থা থেকে বেরিয়ে আসতে চায় যুক্তরাষ্ট্র। তবে বিষয়টি উড়িয়ে দেন অর্থমন্ত্রী স্টিভ নুচিন। সংবাদমাধ্যমটি দাবি করে, ইতিমধ্যে সংস্থটি থেকে বের হওয়ার প্রক্রিয়ার নির্দেশ দিয়েছেন ট্রাম্প। ট্রাম্পের বাণিজ্য সচিব উইলবার রস অবশ্য বলেন, বিশ্ব বাণিজ্য সংস্থা থেকে বেরিয়ে যাবে কিনা সেটা এখনই আলোচনার সময় না।

তিনি বলেন, ‘বিশ্ব বাণিজ্য সংস্থা নিজেও জানে যে কিছু সংস্কার প্রয়োজন। আমরা দেখতে চাই আসলে কি হয়। তবে এখনই বেরিয়ে আসা সমাধান নয়।’ 

ট্রাম্পের আগ্রাসী ভূমিকায় মিত্রদের সঙ্গে বাণিজ্যিক সম্পর্ক ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের। ইউরোপ কিংবা চীন, সবখানে একই অবস্থা। ট্রাম্প গত বছর দায়িত্ব নেয়ার পর থেকে টিটিপি, নাফটা চুক্তির সংস্কার নিয়ে কানাডা ও মেক্সিকোর সঙ্গে আলোচনায় বসেছেন। আর সম্প্রতি চীন থেকে আমদানিকৃত স্টিল ও অ্যালুমিনিয়ামে শুল্ক আরোপ করেছেন ট্রাম্প।