DBC News
'সু চির পদত্যাগ করা উচিত'

'সু চির পদত্যাগ করা উচিত'

রোহিঙ্গাদের ওপর সেনাবাহিনীর নির্যাতন-নিপীড়ন বন্ধ করতে ব্যর্থ হওয়ায়, মিয়ানমারের স্টেট কাউন্সিলর অং সান সু চির পদত্যাগ করা উচিত বলে মন্তব্য করেছেন, জাতিসংঘের মানবাধিকার সংস্থার প্রধান জাইদ রাদ আল হুসেইন।

ব্রিটিশ গণমাধ্যম বিবিসির কাছে জাইদ রাদ আল হুসেইন আরও বলেন, রোহিঙ্গা ইস্যুতে সু চি যেসব অজুহাত দিয়েছেন তা কোন অবস্থাতেই গ্রহণযোগ্য নয়। 

স্টেট কাউন্সিলর সু চি রোহিঙ্গা নিপীড়ন বন্ধে কার্যকর পদক্ষেপ নেয়ার মতো পদে রয়েছেন। কিন্তু তা না করে সু চি সেনাবাহিনীর মুখপাত্রের দায়িত্ব পালন করছেন বলেও অভিযোগ মানবাধিকার সংস্থা প্রধানের।

এর আগে, গত মঙ্গলবার রোহিঙ্গা ইস্যুতে মিয়ানমার সেনাবাহিনীকে দায়ী করে ও সংস্কারের প্রস্তাব দিয়ে প্রতিবেদন প্রকাশ করে জাতিসংঘের তদন্ত দল। প্রতিবেদনে, শীর্ষ সামরিক কর্মকর্তাদের বিচারের মুখোমুখি দাঁড় করানোর সুপারিশ করা হয়। জাতিসংঘের প্রতিবেদনে বলা হয়, ‘নির্বিচার হত্যা, গণধর্ষণ, শিশু নির্যাতন ও গ্রাম জ্বালিয়ে দেয়া—এসব ঘটনাকে সামরিক অভিযান পরিচালনার কথা বলে কোনোভাবেই ন্যায্যতা দেয়া যাবে না।’

কিন্তু সে প্রতিবেদনকে ভিত্তিহীন মন্তব্য করে নেইপিদো বলে, মানবাধিকার লঙ্ঘনের প্রশ্নে মিয়ানমার সরকার সবসময়ই জিরো টলারেন্স নীতিতে চলে। মিয়ানমারের রাষ্ট্রীয় গণমাধ্যমে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে সরকারের মুখপাত্র জ হতয়ে বলেন, ‘আমাদের অবস্থান পরিষ্কার, আমরা স্পষ্ট করে বলতে চাই যে, মানবাধিকার কাউন্সিল পরিচালিত কোনো সিদ্ধান্ত আমরা মেনে নেবো না। এ জন্যই আমরা মানবাধিকার কাউন্সিলের কোনো সিদ্ধান্তের সঙ্গে একমত নই।’

উল্লেখ্য, গত বছরের ২৫শে আগস্ট রাখাইনে রোহিঙ্গাদের বিরুদ্ধে মিয়ানমার সেনাবাহিনী অভিযান পরিচালনা করে। এ সহিংস অভিযানের পরিপ্রেক্ষিতে সাত লক্ষাধিক রোহিঙ্গা পালিয়ে বাংলাদেশে আশ্রয় নেয়। বিভিন্ন সময় সহিংসতার শিকার আরো চার লাখ রোহিঙ্গা তার আগে থেকেই বাংলাদেশের কক্সবাজারে অবস্থান করছে।

আন্তর্জাতিক বেসরকারি চিকিৎসা সংস্থা ‘এমএসএফ’-এর মতে, গত বছরের আগস্টে রাখাইনে সেনাবাহিনীর চালানো সহিংসতার প্রথম মাসেই অন্তত ছয় হাজার ৭০০ রোহিঙ্গাকে হত্যা করা হয়। এদের মধ্যে পাঁচ বছরের কম বয়সী ৭৩০ শিশুও ছিল।