DBC News
'কয়লা চুরি হয়নি, সিস্টেম লস ছিল'

'কয়লা চুরি হয়নি, সিস্টেম লস ছিল'

'কয়লা চুরি হয়নি, সিস্টেম লস হয়েছে' বলে দুদকের জিজ্ঞাসা শেষে সাংবাদিকদের  বললেন, বড়পুকুরিয়া কোল মাইনিং কোম্পানির সাবেক এমডি হাবিব উদ্দিন আহমেদ। এ সময় তিনি আরও বলেন, 'বড়পুকুরিয়া কয়লা খনিতে কোন অনিয়ম বা দুর্নীতি হয়নি, যা হয়েছে সেটা টেকনিক্যাল লস।'

বুধবার সকালে দুর্নীতি দমন কমিশনের জিজ্ঞাসা শেষে, সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে এসব কথা বলেন বড়পুকুরিয়া কোল মাইনিং কোম্পানির সাবেক এমডি হাবিব উদ্দিন আহমেদ।

এর আগে বুধবার সকাল সাড়ে ৯টায় দুদক কার্যালয়ে দিনাজপুরের বড় পুকুরিয়ায় খনি থেকে কয়লা লোপাটের ঘটনায় কোল মাইনিং কোম্পানির সদ্য সাবেক এমডি হাবিব উদ্দিন আহমেদ ও কোম্পানি সচিব আবুল কাশেম প্রধানীয়াসহ আটজনকে জিজ্ঞাসা করে দুর্নীতি দমন কমিশন, দুদক।দুদকের উপ পরিচালক ও মামলার তদন্ত কর্মকর্তা সামছুল আলম তাদের এই জিজ্ঞাসাবাদ করেন।

এদিন কোল মাইনিং কোম্পানির সাবেক ব্যবস্থাপনা পরিচালক হাবিব উদ্দিন আহম্মদ, মহাব্যবস্থাপক (কোম্পানি সচিব) আবুল কাসেম প্রধানীয়া, ব্যবস্থাপক (এক্সপ্লোরেশন) মোশারফ হোসেন সরকার, ব্যবস্থাপক (জেনারেল সার্ভিসেস) মাসুদুর রহমান হাওলাদার, ব্যবস্থাপক (প্রোডাকশন ম্যানেজমেন্ট) অশোক কুমার হালদার, ব্যবস্থাপক (মেইনটেনেন্স অ্যান্ড অপারেশন) আরিফুর রহমান, ব্যবস্থাপক (ডিজাইন, কন্সট্রাকশন অ্যান্ড মেইনটেনেন্স) জাহিদুল ইসলাম এবং উপ ব্যবস্থাপক (সেফটি ম্যানেজমেন্ট) একরামুল হককে জিজ্ঞাসা করে দুদকের তদন্ত দল।

এর আগে, গতকাল মঙ্গলবার পেট্রোবাংলার ব্যবস্থাপকসহ আরও ৮ কর্মকর্তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। 

এছাড়া, মঙ্গলবার বড়পুকুরিয়া খনির মাইন অপারেশন বিভাগের ব্যবস্থাপক এটিএম নূর উজ-জামান চৌধুরী, স্টোর ডিপার্টমেন্টের উপ-ব্যবস্থাপক একেএম খালেদুল ইসলাম, মেইনটেনেন্স অ্যান্ড অপারেশন বিভাগের উপ ব্যবস্থাপক মোহাম্মদ মোর্শেদুজ্জামান, প্রোডাকশন ম্যানেজমেন্টের উপ ব্যবস্থাপক হাবিবুবর রহমান, মাইন ডেভেলপমেন্টের উপ ব্যবস্থাপক জাহেদুর রহমান, ভেন্টিলেশন ম্যানেজমেন্টের সহকারী ব্যবস্থাপক সত্যেন্দ্র নাথ বর্মন, নিরাপত্তা বিভাগের ব্যবস্থাপক সৈয়দ হাসান ইমাম ও মাইন প্লানিং অ্যান্ড ডেভেলপমেন্টের উপ মহাব্যবস্থাপক জোবায়ের আলীকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। এছাড়া, দুই দফায় ১৫ জনকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়।

এরপর ১৩ই আগস্ট পেট্রোবাংলার ৩২জন কর্মকর্তাকে তলব করে চিঠি দেয় দুর্নীতি দমন কমিশন, দুদক। এই মামলায় বাকিদের ২৮, ২৯ ও ৩০শে আগস্ট দুদক কার্যালয়ে হাজির হতে বলা হয়। এর আগে, বড়পুকুরিয়া কোল মাইনিং কোম্পানি লিমিটেডের সাবেক ব্যবস্থাপনা পরিচালক এস এম নুরুল আওরঙ্গজেব ও মহাব্যবস্থাপক সাইফুল ইসলাম সরকারকে গত ১লা আগস্ট জিজ্ঞাসা করে দুর্নীতি বিরোধী প্রতিষ্ঠানটি।

বড়পুকুরিয়া কয়লা খনি থেকে ১ লাখ ৪৪ হাজার টন কয়লা গায়েবের ঘটনায় ২৪শে জুলাই ১৯ জনকে আসামি করে দায়ের করা হয়। মামলার এজাহারে বলা হয়, 'খনির ব্যবস্থাপনা পরিচালক প্রকৌশলী হাবিব উদ্দিন আহমেদ, কোম্পানির সচিব ও মহাব্যবস্থাপক আবুল কাশেম প্রধানিয়া, মহাব্যবস্থাপক নূর-উজ-জামান চৌধুরী ও উপ মহাব্যবস্থাপক একেএম খালেদুল ইসলামসহ খনির ব্যবস্থাপনায় জড়িত অন্য আসামিরা এই কয়লা চুরির ঘটনায় জড়িত। অন্য যাদের আসামি করা হয়েছে তারা প্রত্যেকেই ব্যবস্থাপক, উপ ব্যবস্থাপক ও সহকারি ব্যবস্থাপক পর্যায়ের কর্মকর্তা।

এই  মামলার তদন্ত করছে দুর্নীতি দমন কমিশন, দুদক। 

আরও পড়ুন

বিমানবন্দরে আটক হওয়া পিস্তল পুলিশি তদন্তে খেলনা পিস্তল হিসেবে উল্লেখ

কাস্টমস হাউজের বর্ণনায় আসল পিস্তল হলেও পুলিশি তদন্তে তা খেলনা পিস্তল হিসেবে উল্লেখ করা হয়েছে। দুই বছর আগে শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে এই পিস্তল উদ্ধারের সম...

'সবুজ সংকেতের অপেক্ষায় বিএনপির অনেক নেতাকর্মী'

বিএনপি থেকে অনেকেই আওয়ামী লীগে যোগ দিতে অধীর আগ্রহে অপেক্ষা করছে। আমাদের সভানেত্রী শেখ হাসিনার ক্লিয়ারেন্স পেলে, একটু সবুজ সংকেত পেলেই সারা দেশে বিএনপির বিপুল ন...

বিমানবন্দরে আটক হওয়া পিস্তল পুলিশি তদন্তে খেলনা পিস্তল হিসেবে উল্লেখ

কাস্টমস হাউজের বর্ণনায় আসল পিস্তল হলেও পুলিশি তদন্তে তা খেলনা পিস্তল হিসেবে উল্লেখ করা হয়েছে। দুই বছর আগে শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে এই পিস্তল উদ্ধারের সম...

১৩ বছরেও শেষ হয়নি কিবরিয়া হত্যার বিচার

তেরো বছরেও শেষ হয়নি সাবেক অর্থমন্ত্রী শাহ এএসএম কিবরিয়া হত্যাকান্ডের বিচার। আইনজীবীরা বলছেন, সময়মতো আসামি ও সাক্ষী উপস্থিত না হওয়ায় বিলম্বিত হচ্ছে আলোচিত এই মাম...