DBC News
প্রতিপক্ষের দেয়া আগুনে দগ্ধ মুক্তি মারা গেছেন

প্রতিপক্ষের দেয়া আগুনে দগ্ধ মুক্তি মারা গেছেন

পাবনার সাঁথিয়ায় পূর্ব বিরোধের জেরে প্রতিপক্ষের দেয়া আগুনে দগ্ধ পাবনা সরকারি এডওয়ার্ড কলেজের শিক্ষার্থী মুক্তি খাতুন মারা গেছেন। সোমবার রাত সাড়ে ১২টার দিকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে মারা যান তিনি।

মুক্তি খাতুনের বাড়ি পাবনা জেলার সাঁথিয়া উপজেলার নাগডেমরা গ্রামে। নিহত মুক্তি খাতুন পাবনা এডওয়ার্ড কলেজের দর্শন বিভাগের সম্মান দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্রী ছিলেন। তিনি নাগডেমরা গ্রামের মুক্তিযোদ্ধা মোজাম্মেল হকের মেয়ে। ঈদের ছুটিতে বাড়িতে এসে হামলার শিকার হন মুক্তি।

সাঁথিয়া উপজেলার নাগডেমরা গ্রামের উন্মুক্ত জলাশয় দখলকে কেন্দ্র করে মোজ্জাম্মেল হক ও তার প্রতিদ্বন্দ্বী সালাম গ্রুপের মধ্যে দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলে আসছিল।

পুলিশ ও এলাকাবাসীর সূত্রে জানা যায়, গেল ২রা আগস্ট আবদুস সালামের লোকজন মুক্তিদের বাড়িতে হামলা চালিয়ে ভাঙচুর ও লুটপাট চালায়। এরপর থেকেই মুক্তিদের বাড়ির লোকজন এলাকাছাড়া হয়। পরে পুলিশ ও স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানের হস্তক্ষেপে মুক্তির পরিবারের লোকজন বাড়ি ফেরেন। কথা ছিলো ঈদের পর প্রশাসনের উদ্যোগে দুই পক্ষকে নিয়ে বিরোধের মীমাংসা করা হবে। 

এরপর গেল ১৮ই আগস্ট সকালে, সালামের নেতৃত্বে  ৩০ থেকে ৪০ জন সশস্ত্র সন্ত্রাসী মোজাম্মেল হকের বাড়িতে হামলা চালায়। এ সময় বাড়ির পুরুষ সদস্যদের না পেয়ে হামলাকারীরা মোজ্জাম্মেল হকের মেয়ে মুক্তির ওপর পেট্রল ঢেলে আগুন লাগিয়ে দেয়। এতে তিনি মারাত্মক দগ্ধ হন। পরে স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে প্রথমে সাঁথিয়া ও পরে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে ভর্তি করে। মুক্তির শরীরের ৬২ শতাংশ দগ্ধ হয়।

এ ঘটনায় মুক্তির বাবা মোজ্জাম্মেল হক বাদী হয়ে ১৯শে আগস্ট সাঁথিয়া থানায় আবদুস সালামসহ ৩২ জনকে আসামি করে মামলা করেন। এদিকে নৃশংস এ হত্যাকান্ডে জড়িতদের উপযুক্ত শাস্তির দাবি করেছেন মুক্তির স্বজনরা।

তবে ঘটনায় জড়িত প্রধান আসামিদের এখনো গ্রেপ্তার করতে পারেনি পুলিশ। 

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (বেড়া সার্কেল) মিয়া মোহাম্মদ আশীষ বিন হাসান জানান, এটি অত্যান্ত মর্মান্তিক একটি ঘটনা। এ ঘটনার প্রধান আসামি পলাতক। তবে যেকোন মূল্যে তাকে গ্রেপ্তারের চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে। এ ঘটনায় জড়িতদের গ্রেপ্তারে পুলিশের চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে বলেও জানান এই পুলিশ কর্মকর্তা।

আরও পড়ুন

হাত-পা বেঁধে স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণ: অভিযোগ কোচিং সেন্টার পরিচালকের বিরুদ্ধে

নবম শ্রেণির এক ছাত্রীকে হাত-পা বেঁধে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে কোচিং সেন্টারের পরিচালকের বিরুদ্ধে। চট্টগ্রামের লোহাগাড়ায় ‘সৃজনশীল’ কোচিং সেন্টারের পরিচাল...

শপথ নিতে চান বিএনপির এমপি হারুনুর রশীদ

সংসদে গিয়ে অনিয়ম-দুর্নীতি তুলে ধরতে শপথ নিতে চান চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর আসন থেকে নির্বাচিত বিএনপির সংসদ সদস্য মোহাম্মদ হারুনুর রশীদ। তবে, দলের সিদ্ধান্তের অপেক্ষায়...

হাত-পা বেঁধে স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণ: অভিযোগ কোচিং সেন্টার পরিচালকের বিরুদ্ধে

নবম শ্রেণির এক ছাত্রীকে হাত-পা বেঁধে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে কোচিং সেন্টারের পরিচালকের বিরুদ্ধে। চট্টগ্রামের লোহাগাড়ায় ‘সৃজনশীল’ কোচিং সেন্টারের পরিচাল...

ইসলামিক অনুশাসন মেনেই ক্রিকেট খেলছেন লাবনী

ইচ্ছা শক্তি দিয়েই জয় করা যায় সব বাধা। আর তাই কঠোর ইসলামিক অনুশাসন মেনে চলার পরেও লাবনী আক্তার একজন পেশাদার ক্রিকেটার। খেলাঘররে হোয়ে খেলছেন প্রিমিয়ার ক্রিকেট। প্...