DBC News
রোহিঙ্গা নিপীড়নের বিচার চাইলেন আসিয়ানের ১৩২ এমপি

রোহিঙ্গা নিপীড়নের বিচার চাইলেন আসিয়ানের ১৩২ এমপি

মিয়ানমারের রাখাইনে রোহিঙ্গাদের ওপর বর্বর নিধনযজ্ঞের জন্য দায়ীদের আন্তর্জাতিক অপরাধ আদালতে বিচারের মুখোমুখি করতে জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদের হস্তক্ষেপ চেয়েছেন দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার পাঁচ দেশের ১৩২ জন আইন প্রণেতা।

বছরখানেক আগে শুরু হওয়া সংকটে এটিই সবচেয়ে বড় সম্মিলিত নিন্দা জানানোর ঘটনা। বিবৃতিদাতা আইন প্রণেতারা ইন্দোনেশিয়া, মালয়েশিয়া, ফিলিপাইনস, সিঙ্গাপুর, ও পূর্ব তিমুরের পার্লামেন্ট সদস্য। 

এক যৌথ বিবৃতিতে তারা বলেছেন, 'রোহিঙ্গাসহ অন্যান্য সংখ্যালঘু জনগোষ্ঠীর ওপর নিপীড়ন এবং মানবাধিকার লঙ্ঘন বন্ধ করতে মিয়ানমার সরকার এবং দেশটির সেনাবাহিনীর ওপর চাপ বাড়াতে হবে।' 

১৩২ এমপির তরফে কথা বলেন, মালয়েশিয়ার জোট সরকারের রাজনীতিবিদ চার্লস সান্তিয়াগো। তিনি বলেন, 'নিজের অপরাধ নিয়ে মিয়ানমার তদন্ত করতে অক্ষম ও অনিচ্ছুক। কাজেই আমরা এমন একটি স্তরে রয়েছি যে মিয়ানমারকে জবাবদিহিতার আওতায় নিয়ে আসতে আন্তর্জাতিক পদক্ষেপ নিতে হবে।'

তিনি বলেন, 'যারা এই ভয়াবহ অপরাধের সঙ্গে জড়িত, তাদের মুক্তভাবে ছেড়ে দেয়া যায় না।' 

গেল বছরের আগস্টে মিয়ানমার সামরিক বাহিনীর অভিযানে হাজার হাজার রোহিঙ্গাকে হত্যা ও গ্রামের পর গ্রাম সংখ্যালঘুদের বাড়িঘর পুড়িয়ে দেয়া শুরু হয়। নারীরা গণধর্ষনের শিকার হন। জাতিসংঘের ভাষায় যাকে জাতিগত নিধনের একটি জ্বলন্ত উদাহরণ বলা হয়েছে।

আসিয়ান এমপিরা বলেন, 'রোহিঙ্গাসহ অন্যান্য সংখ্যালঘু জনগোষ্ঠীর ওপর চালানো এই নিপীড়ন ও মানবাধিকার লঙ্ঘন বন্ধ করতে মিয়ানমার সরকার ও সে দেশের সেনাবাহিনীর ওপর চাপ বাড়াতে হবে।'