DBC News
'গ্রেনেড হামলা মামলার রায় হলে বিএনপি রাজনৈতিক সংকটে পড়বে'

'গ্রেনেড হামলা মামলার রায় হলে বিএনপি রাজনৈতিক সংকটে পড়বে'

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেছেন, 'আগামী মাসে ২১শে আগস্ট গ্রেনেড হামলা মামলার রায় হলে বিএনপি আবারও রাজনৈতিক সংকটে পড়বে।'

আজ শুক্রবার প্রয়াত রাষ্ট্রপতি জিল্লুর রহমানের সহধর্মিনী ও আওয়ামী লীগ নেত্রী আইভি রহমানের ১৪তম মৃত্যুবার্ষিকীতে বনানী কবরস্থানে তাঁর প্রতি শ্রদ্ধা জানানোর পর সাংবাদিকদের কাছে এ কথা বলেন ওবায়দুল কাদের।
 
আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, '২১শে আগস্ট গ্রেনেড হামলা মামলার রায় যখনই ঘনিয়ে আসছে, ঠিক তখনই তারা (বিএনপি) হইচই শুরু করেছে। এর মাধ্যমে তারা খুনিদের বাঁচানোর অপচেষ্টা চালাচ্ছে।'

তিনি আরও বলেন, 'আগামী নির্বাচনকে ঘিরে বিএনপি কোনো সহিংস পরিস্থিতি সৃষ্টির চেষ্টা করলে জনগণই তা প্রতিহত করবে।'

প্রসঙ্গত শেখ হাসিনাসহ আওয়ামী লীগের শীর্ষ নেতৃত্বকে একসাথে হত্যার উদ্দেশ্যে ২০০৪ সালের ২১শে আগস্ট গ্রেনেড হামলার মামলার নিষ্পত্তি ১৪ বছরেও করা যায়নি। আর এজন্য রাষ্ট্রপক্ষ ও আসামিপক্ষ পরস্পরের বিরুদ্ধে সময়ক্ষেপনের অভিযোগ তুলেছে। ওই হামলায় শেখ হাসিনা অল্পের জন্য বেঁচে যান। ক্ষতিগ্রস্ত হয় তার শ্রবন শক্তি। প্রাণ হারান আওয়ামী লীগ নেত্রী আইভি রহমানসহ ২৪ জন। আহত হন তিন শতাধিক। 

আওয়ামী লীগ সভানেত্রী শেখ হাসিনার জনসভায় গ্রেনেড হামলার ঘটনায় দুটি মামলায় আসামি ৪৯ জন। এরমধ্যে বিএনপির সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমান, সাবেক স্বরাস্ট্র প্রতিমন্ত্রী লুৎফুজ্জামান বাবর, সাবেক শিক্ষা উপমন্ত্রী আব্দুস সালাম পিন্টু, সাবেক এমপি শাহ মোফাজ্জল কায়কোবাদ, বিএনপি নেতা হারিস চৌধুরি, সাবেক তিন আইজিপি আশরাফুল হুদা, শহুদুল হক ও খোদা বক্স চৌধুরি, সাবেক সামরিক গোয়েন্দা কর্মকর্তা এটিএম আমিন, সাইফুল ইসলাম জোয়ার্দার ও জাতীয় নিরাপত্তা সংস্থার সাবেক মহাপরিচালক রেজাকুল হায়দার এবং হরকাতুল জিহাদের বেশ কজন নেতা রয়েছেন।