DBC News
ক্ষমতা হারালেন টার্নবুল, অস্ট্রেলিয়ার নতুন প্রধানমন্ত্রী মরিসন

ক্ষমতা হারালেন টার্নবুল, অস্ট্রেলিয়ার নতুন প্রধানমন্ত্রী মরিসন

এক সপ্তাহের নাটকীয়তার পর ম্যালকম টার্নবুলকে অস্ট্রেলিয়ার প্রধানমন্ত্রীর পদ থেকে অপসারণ করেছে তার দল। দেশটির নতুন প্রধানমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব নিয়েছেন বর্তমান অর্থমন্ত্রণালয়ের দায়িত্বে থাকা স্কট মরিসন। শুক্রবার সকালে বার্ত সংস্থা এএফপির প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

এতে বলা হয়েছে, লিবারেল পার্টি তাদের নতুন নেতা হিসেবে স্কট মরিসনকে বেছে নেয়ায় গত ১১ বছরের মধ্যে সপ্তম প্রধানমন্ত্রী পেলো অস্ট্রেলিয়া। আগের ছয়জনের মধ্যে টার্নবুলসহ চারজনই মেয়াদ শেষ হওয়ার আগে নিজ দলের সিদ্ধান্তে পদ হারান।

লিবারেল পার্টির নেতৃত্ব নিয়ে গত কয়েকদিন ধরেই সংকট চলছিল। এ অবস্থায় শুক্রবার সকালে লিবারেল পার্টির 'নেতৃত্ব নির্বাচন' ভোটাভুটি হয়। তবে এতে অংশই নেননি টার্নবুল। ভোটাভুটিতে সাবেক স্বরাষ্ট্র বিষয়ক মন্ত্রী পিটার ডাটনের বিরুদ্ধে ৪৫-৪০ ভোটে জয়ী হন ম্যালকম টার্নবুলের ঘনিষ্ঠ সহযোগী অর্থমন্ত্রীর দায়িত্বে থাকা স্কট মরিসন।

টার্নবুলের আরেক ঘনিষ্ঠ সহযোগী পররাষ্ট্রমন্ত্রী জুলি বিশপও নেতৃত্বের লড়াইয়ে অংশ নিয়েছিলেন। তবে ভোটাভুটির প্রথম রাউন্ডেই বাদ পড়েন তিনি।

নেতৃত্ব হারানোর পর এক সংবাদ সম্মেলনে দেশবাসীর উদ্দেশ্যে টার্নবুল বলেন, 'এই মহান জাতির নেতা হওয়াটা আমার জন্য অনেক বড় ব্যাপার ছিল। আমি অস্ট্রেলিয়াকে ভালোবাসি। আমি অস্ট্রেলিয়দের ভালোবাসি।'

আসন্ন জাতীয় নির্বাচনের আগে সরকার সম্পর্কে জনমত জরিপে ভালো ফল না আসা এবং সাম্প্রতিক উপ নির্বাচনে পরাজয় ক্ষমতাসীন লিবারেল পার্টির নেতৃত্বকে উদ্বিগ্ন করে তোলে। এরই মধ্যে গত সপ্তাহে জ্বালানি নীতিমালা ঘিরে টার্নবুলের সঙ্গে দলের রক্ষণশীল অংশের বিবাদ স্পষ্ট হয়। এরপর দলের সংখ্যাগরিষ্ঠ অংশ, নেতৃত্বে পরিবর্তনের দাবি তুললে সরে দাঁড়াতে সম্মত হন টার্নবুল।