DBC News
চালের দাম গড়ে বেড়েছে ৬৫ শতাংশ

চালের দাম গড়ে বেড়েছে ৬৫ শতাংশ

গেলো ৯ বছরে সব ধরনের চালের দাম গড়ে বেড়েছে প্রায় ৬৫ শতাংশ। আর এর মধ্যে সব চেয়ে বেশি বেড়েছে মধ্যম মানের চালের দাম। ব্যবসায়ীরা বলছেন, পাইকারি পর্যায়ে নজরদারি থাকায় দাম নিয়ে কারসাজির সুযোগ নেই। তাদের অভিযোগ খুচরা বাজারের দিকে। আর বিশ্লেষকরা বলছেন, হাতেগোনা কয়েকটি প্রতিষ্ঠানই দায়ী শহরে চালের বাজার অস্থিতিশীল করার জন্য।

পরিসংখ্যান ব্যুরো'র তথ্য অনুযায়ি ২০১৬-১৭ অর্থবছরে সারাদেশে প্রায় সাড়ে ৮৫ লাখ হেক্টর জমিতে আবাদ হওয়া ধান থেকে চাল পাওয়া গেছে ৩ কোটি ৩৮ লাখ টন। আর গেল ৮ অর্থবছরে গড়ে চালের উৎপাদন হয়েছে ৩ কোটি ৪০ লাখ টন। ধারাবাহিক ভাবে উৎপাদন বাড়লেও একই সময়ে বেড়েছে চালের দরও।

ভোক্তাদের সংগঠন ক্যাবের তথ্য অনুয়ায়ি, ২০০৯ সালে মোটা পারিজা এবং স্বর্ণা জাতের মোটা চাল বিক্রি হয়েছে গড়ে ২৭ টাকা ৬৮ পয়সায় কিন্তু সেই একই চালের দাম প্রায় দ্বিগুণ বেড়ে ২০১৭ সালে হয়েছে ৪৫ টাকা ৬৫ পয়সা। 

এদিকে, রাজধানীসহ বিভাগীয় শহরগুলোতে চালের চড়া দাম হলেও কৃষক তার কোনো সুফল পাচ্ছেন না। বরং উৎপাদন খরচ আগের চেয়ে বেড়ে যাওয়া ধান চাষে বাড়ছে অনিহা।

কৃষি অর্থনীতিবিদ ড. জাহাঙ্গীর আলম এর মতে, এ বছর ধানের ফলন ভালো হওয়ায় এখন চালের দাম বেশি হওয়ার কোনো কারন নেই। সরকার যদি বড় বড় প্রতিষ্ঠানের বদলে ক্ষুদ্র কৃষকের কাছ থেকে সরাসরি চাল কেনে, তাহলে এ সমস্যা অনেকটাই কাটবে বলে মনে করেন তিনি।