DBC News
মানবতাবিরোধী অপরাধ: ৪ রাজাকারের ফাঁসির আদেশ

মানবতাবিরোধী অপরাধ: ৪ রাজাকারের ফাঁসির আদেশ

মানবতাবিরোধী অপরাধের মামলায় মৌলভীবাজারের রাজানগর উপজেলার মাদ্রাসা শিক্ষক আকমল আলী তালুকদারসহ চারজনের ফাঁসির আদেশ দিয়েছে আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল।

বিচারপতি শাহিনুর ইসলামের নেতৃত্বে তিন সদস্যের ট্রাইব্যুনাল আজ মঙ্গলবার এই রায় ঘোষণা করেন। রায়ে বলা হয়, আসামিদের বিরুদ্ধে রাষ্ট্রপক্ষের আনা দুটি অভিযোগই প্রমাণিত হয়েছে। এরমধ্যে একটি অভিযোগে চার আসামির সবাইকে মৃত্যুদণ্ড এবং অন্য অভিযোগে সবাইকে আমৃত্যু কারাদণ্ডাদেশ দেন আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল।

আদালতের নথি এবং মামলার তথ্য অনুযায়ী, চার আসামি স্বাধীনতাযুদ্ধ চলাকালে রাজাকার বাহিনীর সদস্য হিসেবে বাংলাদেশের স্বাধীনতার বিরোধীতা করে এবং রাজনগর গ্রামে মানবতা বিরোধী বিভিন্ন অপরাধ ঘটায়।

শুধু হত্যা নয়, আসামিরা মানবতার বিরুদ্ধে চরম অপরাধ করেছে বলে পর্যবেক্ষণে জানিয়েছে আদালত। আসামিদের বিরুদ্ধে মুক্তিযুদ্ধের সময় হত্যা, গণহত্যা, ধর্ষণ, অপহরণ, আটক, নির্যাতনের মতো মানবতাবিরোধী অপরাধের দুটি অভিযোগই প্রমাণিত হয়েছে। এটি যুদ্ধাপরাধের মামলায় ৩৩তম রায়।

দণ্ডপ্রাপ্ত চারজন হলেন, মৌলভীবাজারের রাজনগর উপজেলার সাবেক মাদ্রাসা শিক্ষক আকমল আলী তালুকদার, আব্দুন নূর তালুকদার ওরফে লাল মিয়া, আনিছ নিয়া ও আব্দুল মোছাব্বির মিয়া। এদের মধ্যে আকমল আলী তালুকদার ও লাল মিয়া সেসময় মুসলিম লীগের রাজনীতির সঙ্গে জড়িত ছিলেন।  আসামিদের মধ্যে আকমল আলী তালুকদার গ্রেপ্তার রয়েছেন। বাকি তিন আসামি পলাতক। পলাতক তিন আসামিকে গ্রেপ্তার করে সাজা কার্যকর করতে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রণালয় ও পুলিশের আইজিকে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে বলা হয়েছে আদালতের রায়ে। মামলার যুক্তিতর্ক উপস্থাপনের সময় আসামি আকমল আলী তালুকদার আদালতে উপস্থিত ছিলেন। 

এর আগে উভয়পক্ষের যুক্তিতর্ক শেষে গেল ২৭শে মার্চ যে কোনো দিন রায় ঘোষণার আদেশ দেয় আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল। আসামিদের বিরুদ্ধে হত্যা, গণহত্যা, ধর্ষণ, অপহরণ, আটক, নির্যাতনের মতো মানবতাবিরোধী অপরাধের দুটি অভিযোগ আনা হয়। এর মধ্যে ৬১ জনকে হত্যা ও ছয়জনকে ধর্ষণের অভিযোগ রয়েছে।

ট্রাইব্যুনালে রাষ্ট্রপক্ষে শুনানি করেন প্রসিকিউটর হয়দার আলী ও শেখ মুশফিক কবীর। আসামিপক্ষে আইনজীবী ছিলেন আব্দুস সোবহান তরফদার। পলাতক আসামিদের পক্ষে রাষ্ট্রনিযুক্ত আইনজীবী ছিলেন আবুল হোসেন।

২০১৫ সালের ২৬শে নভেম্বর চার আসামির বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করে ট্রাইব্যুনাল। ওই দিনই আসামি আকমল আলী তালুকদার গ্রেপ্তার করে পুলিশ। পরে ট্রাইব্যুনালের মাধ্যমে তাকে কারাগারে পাঠানো হয়।

ট্রাইব্যুনালের তদন্ত সংস্থা ২০১৬ সালের ২৩শে মার্চ তদন্ত প্রতিবেদন চূড়ান্ত করে। আনুষ্ঠানিক অভিযোগ দাখিলের পর গত বছরের ৭ই মে আসামিদের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করে আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল।

আরও পড়ুন

শুরু হলো প্রাথমিক সমাপনী পরীক্ষা

দেশের প্রায় সাড়ে সাত হাজার কেন্দ্রে একযোগে শুরু হয়েছে প্রাথমিক ও ইবতেদায়ি শিক্ষা সমাপনী পরীক্ষা। যাতে অংশ নিচ্ছে ৩০ লাখ ৯৫ হাজার ১২৩ জন ক্ষুদে শিক্ষার্থী। ...

পেশাদারিত্বের সাথে দায়িত্ব পালনের আহ্বান সেনাপ্রধানের

নির্বাচনে সেনা মোতায়েন হলে, তারা পেশাদারিত্বের সঙ্গে দায়িত্ব পালন করবে বলে জানিয়েছেন, সেনাপ্রধান জেনারেল আজিজ আহমেদ। রবিবার সকালে সাভার সেনানিবাসে সিএমপিসিএন্ডএ...

জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট মামলার রায়ের কপি প্রকাশ

জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলার রায়ের চূড়ান্ত কপি প্রকাশ করা হয়েছে। রায়ের অনুলিপি হাতে পেয়েছেন খালেদা জিয়া ও দুদকের আইনজীবীরা। ছয় শতাধিক পৃষ্ঠার এ রায় হ...

নির্বাচন না করতে দেয়ার জন্য আদালতকে বললেন, খালেদা জিয়া

'আদালতে আটকে রাখলে নির্বাচনে অংশ নেয়া সম্ভব নয়। তাই তাকে নির্বাচন করতে না দেয়ার জন্য আদালতকে বলেছেন, বিএনপির কারাবন্দি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া। আজ বুধবার সকালে,...