DBC News
ক্রোয়েশিয়াকে হারিয়ে বিশ্বচ্যাম্পিয়ন ফ্রান্স

ক্রোয়েশিয়াকে হারিয়ে বিশ্বচ্যাম্পিয়ন ফ্রান্স

প্রথমবারের মতো ফাইনালে উঠে শিরোপা জেতা হলো না ইতিহাস গড়া ক্রোয়েশিয়ার। দ্বিতীয়বারের মতো বিশ্বকাপ জিতলো ফ্রান্স। মস্কোর লুজনিকি স্টেডিয়ামে রাশিয়া বিশ্বকাপের ফাইনালে ক্রোয়েশিয়াকে ৪-২ গোলে হারিয়েছে দিদিয়ের দেশমের দল।

সাবেক জার্মান অধিনায়ক ফিলিপ লাম ট্রফি নিয়ে যখন মাঠে প্রবেশ করলেন ততক্ষণে বিশ্বকাপ জ্বরে আক্রান্ত পুরো স্টেডিয়াম। ক্রোয়েশিয়ার প্রথম নাকি ফ্রান্সের দ্বিতীয়,কোয়েশ্চেন অব বিলিয়ন ইউরো, লুঝনিকিতে কে হাসবে শেষ হাসি?

মাঠে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে লড়ার শপথ নিয়ে প্রস্তুত দুই দলের খেলোয়াড়রা। দেশমের ৪-৪-২ দাগানো কামানের পরিকল্পনায় জ্লাতকো দালিচের ৪-১-৪-১ এ মিসাইল। একমাসের উন্মাদনায় বুদ হয়ে থাকা ফুটবল বিশ্বকে নাড়া দিয়ে ম্যোচ শুরু নাশি বেজে উঠললো আর্জেন্টাইন রেফারী পিতানার ঠোটে, ব্যাস বল দখলের যুদ্ধ শুরু।

১৮ মিনিটে ক্রোয়েশিয়া রক্ষণে গোলযোগ, প্রতিপক্ষকে ব্লক করার মাশুল গুনতে হলো ফ্রি রিসিভ করার মধ্য দিয়ে, গ্রিজম্যানের নেয়া কিকে আত্নঘাতী গোল করে বসলেন মারিও মানজুকিচ।

ঠিক ১০ মিনিট পর হাফ ছেড়ে বাচলো ক্রোয়েট সমর্থকরা, ভিদার বাড়ানো বলে ফ্রান্সের জালে বল পাঠালেন পেরিসিচ, স্কোর লাইনে সমতা।

টেন মিনিটস কারিশমার ফুটবল, সমতার দশ মিনিট পর সেই পেরিসিচের হ্যান্ডবলের জরিমানা গুনলো ক্রোয়েশিয়া, ব্লুদের হয়ে ডিরেক্ট শুটে ভুল করেননি গ্রিজম্যান, ২-১ এ এগিয়ে গেলো ফ্রান্স।

পগবা, গ্রিজম্যান আর এমবাপ্পেদের দাপটে যেন মুছে গেছে রাকিতিস-মদ্রিচ জুটির ৫৯ মিনিটে সুবাসিচের চোখের সামনেই ক্রোয়েটদের জালে বল পাঠালেন পল পগবা।

থেমে নেই ফরাসী তান্ডব ক্রোয়েশিরা সীমানায়, ৬৫ মিনিটে লুকাস হার্নান্দেজের বাড়ানো বলে ফ্রান্সকে ৪-১ এর লিড এনে দিলেন এমবাপ্পে।

৬৯ মিনিটে ফ্রান্স ডিফেন্ডারের ব্যাকপাস, গোল কিপার হুগো লরিস রিসিভ করার মাঝেই মানজুকিচের টোকায় বল গেলো ফ্রান্সের জালে, ব্যবধান নেমে এলো ৪-২ এ।

এরপর ম্যাজিক্যাল বাঁশির অপেক্ষা, ফ্রান্সের আক্রমণের বিপরীতে হালে পানি পায়নি ক্রোয়েশিয়ার কাউন্টার। খেলা ভাঙলো পিতানার শেষ বাঁশিতে, ক্রোয়েটদের হতাশার বিপরীতে দ্বিতীয়বারে মত কাপ জয়ের উল্লাস ফরাসী শিবিরে।