DBC News
যুক্তরাষ্ট্র ও চীনের পাল্টাপাল্টি শুল্ক

যুক্তরাষ্ট্র ও চীনের পাল্টাপাল্টি শুল্ক

আটশটি চীনা পণ্যের ওপর যুক্তরাষ্ট্র আরোপিত ২৫ শতাংশ শুল্ক আজ থেকে কার্যকর হচ্ছে। অন্যদিকে, একই মূল্যের মার্কিন পণ্যের ওপর চীনও পাল্টা ২৫ শতাংশ শুল্ক আরোপ করেছে। 

গত ১৫ই জুন চীনা পণ্যের ওপর নতুন করে ২৫ শতাংশ আমদানি শুল্ক আরোপের ঘোষণা দেন ট্রাম্প। প্রথম পর্যায়ে এখন থেকে বিমানের টায়ার ও বাণিজ্যিক ডিশওয়াশারসহ তিন হাজার চারশ কোটি ডলার সমমূল্যের চীনা পণ্য আমদানিতে মার্কিন ব্যবসায়ীদের শুল্ক গুনতে হবে। ট্রাম্পের অভিযোগ, চীন যুক্তরাষ্ট্রের বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান থেকে মেধাসম্পদ চুরি ও স্থানান্তর করছে। 

হোয়াইট হাউস জানিয়েছে, বাকি ১৬শ' কোটি ডলার মূল্যের চীনা পণ্যের ওপর শুল্ক আরোপ নিয়ে আলোচনা চলছে। জবাবে আজ থেকে চীনও যুক্তরাষ্ট্রের কৃষিজাত পণ্য ও গাড়িসহ তিন হাজার চারশ' কোটি ডলার সমমূল্যের পণ্য থেকে ২৫ শতাংশ শুল্ক আদায় করবে। 

বড় দুই অর্থনীতির দেশের মধ্যকার এ বাণিজ্যযুদ্ধে বৈশ্বিক বাণিজ্য ও প্রবৃদ্ধি ক্ষতিগ্রস্ত হবে বলে আশঙ্কা করছেন বিশ্লেষকরা।

এছাড়া ট্রাম্পের সংরক্ষণবাদ নীতির আওতায় গত মার্চে ইস্পাত ও অ্যালুমিনিয়াম আমদানির ওপর যথাক্রমে ২৫ শতাংশ ও ১০ শতাংশ শুল্ক আরোপের ঘোষণা দেয়া হয়। সে সময় ট্রাম্প দাবি করেছিলেন, ‘জাতীয় নিরাপত্তার স্বার্থে’ তিনি ওই সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। শুল্ক আরোপের সিদ্ধান্তটি কার্যকর হয় ১লা জুন। এতে ইউরোপীয় ইউনিয়ন, কানাডা, মেক্সিকো ও যুক্তরাষ্ট্রের অন্য ঘনিষ্ঠ মিত্রদের বাণিজ্যের ওপর প্রভাব পড়ে। যুক্তরাষ্ট্রের বিরুদ্ধে প্রতিশোধমূলক ব্যবস্থা হিসেবে মার্কিন পণ্যে পাল্টা শুল্ক আরোপ করেছে ইউরোপীয় ইউনিয়ন। ২৮০ কোটি ইউরো মূল্যের মার্কিন পণ্যে আমদানি শুল্ক আরোপের সিদ্ধান্তটি ২২শে জুন থেকে কার্যকর হয়।