DBC News
ইন্টারনেট ব্যবহারে ভ্যাট কমা ব্যবসার জন্য ইতিবাচক

ইন্টারনেট ব্যবহারে ভ্যাট কমা ব্যবসার জন্য ইতিবাচক

অবশেষে ইন্টারনেট ব্যবহারের ওপর ভ্যাট কমছে ১০ শতাংশ। আগামীকাল পাশ হতে যাওয়া নতুন অর্থবছরের সংশোধিত বাজেটেই এ নির্দেশনা থাকবে। অর্থমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠকের পর এমন তথ্য নিশ্চিত করেছে তথ্য প্রযুক্তি খাতের ব্যবসায়ীদের সংগঠন বেসিস। এতে করে ইন্টারনেটভিত্তিক সব ধরনের ব্যবসায় এর ইতিবাচক প্রভাব পড়বে বলে মনে করছেন বেসিস সভাপতি। 

বাংলাদেশে ব্রন্ডব্যান্ড ও মোবাইল নেটওয়ার্ক-দু'ভাবেই প্রসার ঘটেছে ইন্টারনেটের। দেশে ইন্টারনেট ব্যবহারকারীর সংখ্যা এখন প্রায় ৮ কোটি ৬০ লাখ। প্রতিদিনের জীবনযাপনে অপরিহার্য ইন্টারনেট ব্যবহারে খরচ বেশ চড়া। মোবাইলে ২১.৭৫% ও ব্রডব্যান্ডে ১৫% শতাংশ ভ্যাট দিতে হয় ব্যবহারকারীকে।

তথ্যপ্রযুক্তি শিল্পের প্রসারের স্বার্থে এই খরচ কমানোর দাবি দীর্ঘদিনের। অবশেষে এবারের সংশোধিত বাজেটে সব ধরণের ইন্টারনেট সেবা থেকে ভ্যাট কমছে ১০ শতাংশ।  এই ১০ শতাংশ ভ্যাট কমানোকে বেশ বড় সুবিধা হিসেবেই দেখছেন বেসিস সভাপতি সৈয়দ আলমাস কবীর।

প্রস্তাবিত বাজেটে সব ধরনের সফটওয়্যার আমদানিতে শুল্ক কমানো হয়েছে। যা স্থানীয় উদ্যোক্তাদের আশঙ্কার কারণ। এ বিষয়ে লিডস কর্পোরেশন লিমিটেড'র চেয়ারম্যান শেখ আবদুল আজিজ বলেন, "দেশে উৎপাদিত অ্যাপ্লিকেশন সফটওয়্যার বিভিন্ন যায়গায় ব্যবহৃত হচ্ছে, এটি আমরা বিদেশ থেকে আমদানি করতে চাই না।" তবে সব ধরনের সফটওয়্যার আমদানিতে শুল্ক কমানো সবমিলে একই হবে বলেও মনে করেন তিনি।   

এদিকে, শেষ পর্যন্ত সফটওয়্যার শিল্পের দেশি উদ্যোক্তাদের সুরক্ষা দেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন অর্থমন্ত্রী। যার প্রতিফলন চূড়ান্ত বাজেটে দেখা যাবে বলে জানান বেসিস সভাপতি।

ইন্টারনেট সেবা থেকে বছরে সরকার রাজস্ব পায় হাজার কোটি টাকার বেশি। বেসিস বলছে, কর কমালেই বরং রাজস্ব বাড়বে কয়েকগুণ বেশি।