DBC News
শুল্ক আরোপের প্রস্তাবেই বেড়েছে চালের দাম

শুল্ক আরোপের প্রস্তাবেই বেড়েছে চালের দাম

আগামী অর্থবছরের জন্য প্রস্তাবিত বাজেটে আমদানিতে আবারও ২৮ শতাংশ শুল্ক আরোপের প্রস্তাবেই বাজারে দাম বেড়েছে দেশি চালের। যদিও জাতীয় সংসদে এ প্রস্তাব অনুমোদিত হতে হবে। কিন্তু প্রস্তাবিত বাজেট জাতীয় সংসদে পাস হওয়ার আগেই খুচরা বাজারে সবধরনের চালের দাম বেড়েছে কেজি প্রতি ৫ টাকা। পাইকারি ও মিল পর্যায়ে দাম বৃদ্ধির পরিমাণ যথাক্রমে তিন ও দুই টাকা। 

গত বছর এপ্রিলের শুরুতে আগাম বৃষ্টি ও বন্যার কারণে ফসলহানি আর সরকারের গুদামে মজুদ তলানিতে নেমে আসায় চাল আমদানিতে থাকা শুল্ক ২৮ শতাংশ থেকে ২ শতাংশে নামিয়ে আনে সরকার।

তবে পরিস্থিতি এখন স্বাভাবিক। আর এ বছর ধানের উৎপাদনও ভালো। আর তাই কৃষকের উৎপাদিত ফসলের ন্যায্যমূল্য প্রাপ্তি নিশ্চিত করতে চাল আমদানিতে আবারও ২৮ শতাংশ শুল্ক আরোপের প্রস্তাব দেন অর্থমন্ত্রী।

ব্যবসায়ীরা বলছেন, শুল্ক আরোপের এ প্রস্তাবের পরপরই চালের দাম বেড়েছে কেজিতে অন্তত ৫ টাকা।

অন্যদিকে বাজেট পাশের আগেই আমদানি করা চালে ২ শতাংশের পরিবর্তে ২৮ শতাংশ হারে শুল্ক আদায় করা হচ্ছে বলেও অভিযোগ হিলি স্থলবন্দর আমদানি-রপ্তানিকারক গ্রুপের সভাপতি হারুনুর রশিদ হারুনের।

কৃষকের স্বার্থে শুল্ক আরোপের প্রস্তাবকে সরকারের সঠিক সিদ্ধান্ত বলছে, কনজুমার অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ-ক্যাবের সভাপতি গোলাম রহমান।

আবারো শুল্ক আরোপের প্রস্তাবে আমদানিকারকরা অখুশি আর কৃষক লাভবান হলেও চালের দাম বাড়লে, পকেট ফাঁকা হবে ভোক্তাদেরই।