DBC News
নারীর জন্য স্কুটি চালনা প্রশিক্ষন স্কুল

নারীর জন্য স্কুটি চালনা প্রশিক্ষন স্কুল

নারীদের স্কুটি চালানোর প্রশিক্ষন স্কুল "যাবো বহুদূর"। গণপরিবহনে ৮৪ ভাগ নারী যৌন হেনস্থার শিকার হন। গণপরিবহনে নারী হেনস্তা এবং স্বাধীন ভাবে চলাচল করার লক্ষ্য নিয়ে অনেকেই আসছেন এই স্কুলে। মাত্র সাতদিনে স্বাধীনভাবে উড়ে বেড়াবার দক্ষতা দিচ্ছে এই স্কুল।

আগাঁরগাওয়ের নিশি কাউসার। গান করেন। প্রায়ই বিটিভিতে গানের রেকর্ডিং থাকে। আগারগাঁ থেকে রামপুরা টিভি ভবন। শুধু দুরত্বই নয়, বাসে নারী হেনস্তার কথা মনে করে গানই ছেড়ে দেয়ার অবস্থা তার। এই সময় খোঁজ পেলেন স্কুটি চালনা প্রশিক্ষন স্কুল "যাবো বহুদূর" এর।

নারীদের স্কুটি চালানোর প্রশিক্ষন দেয়ার এই স্কুলটি তেঁজগাওয়ে। এই মুহুর্তে চালানো শিখছেন ৩২ জন নারী। সকলের ভিন্ন ভিন্ন কারণ থাকলেও গণপরিবহনে হেনস্তার ভয় সকলের জন্যই সমান।

প্রশিক্ষকরা বলছেন, নারীদের বাইক চালানোর প্রশিক্ষন দেয়া সহজ। কারন তারা অকারন ঝুঁকি নেননা, ট্রাফিক আইন মেনে চলেন।

"যাবো বহুদূর" এর স্বপ্ন দেখেছেন বাইক রাইডার আতিকা রোমা। মেয়েরা সামাজিক প্রথা ভেঙে নিজের বাহনের নিয়ন্ত্রন নিজ হাতে নেবে এই ছিল স্বপ্ন।

এ পর্যন্ত মোট ৬৩ জন প্রশিক্ষন নিয়েছেন। সাতদিনের কোর্সে ৩০০০ টাকা দিতে হয়। আর সাতদিনে দুই ঘন্টা করে প্রশিক্ষন নিয়েই অধিকাংশ নারী রাস্তায় চালানোর আত্নবিশ্বাস পান।