DBC News
আমদানি করা গ্যাসের ৫ ভাগের ১ ভাগই যাবে অপচয়ে

আমদানি করা গ্যাসের ৫ ভাগের ১ ভাগই যাবে অপচয়ে

তিতাসে সিস্টেম লসের কারণে রোজ অপচয় হচ্ছে ১০ কোটি ঘনফুট গ্যাস। অথচ কয়েকদিন পরেই প্রতিদিন জাতীয় গ্যাস গ্রিডে যোগ হবে ৫০ কোটি ঘনফুট আমদানি করা গ্যাস। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, লোকসান কমানোর পাশাপাশ দেশি গ্যাস অনুসন্ধানের ওপর গুরুত্ব দিলে, ভবিষ্যতে আমদানির দরকার হবে না।

গৃহস্থালি কিংবা শিল্প কারখানায় সুবিধা নিতেই অবৈধ সংযোগ নেয়া হয়। অভিযোগ আছে এসব সংযোগ বিচ্ছিন্ন করতে তিতাসের তৎপরতা সামন্যই। সারাদেশে কতগুলো অবৈধ সংযোগ আছে, তার কোন হিসাবও নেই।

এনার্জি রেগুলেটরি কমিশন বিইআরসি'র বিশ্লেষণ বলছে, তিতাসের সিস্টেম লসের নামে ২০১৬-১৭ অর্থবছরে গ্যাসের অপচয় হয়েছে ৬ শতাংশ বা ৩ হাজার ৬ শ ৭৬ কোটি ঘনফুট গ্যাস। প্রতিদিনের লোকসান ১০ কোটি ঘনফুট।

ক্যাবের জ্বালানি উপদেষ্টা অধ্যাপক শামসুল আলম জানান, ৩৪ লাখ মত চুলা আছে সেই চুলায় ৮৮ ইউনিট গ্যাস সরবারাহ করার কথা কিন্তু এখন সেই চুলাগুলো এখন গ্যাস সংকটে ভুগছে, তারা ১০ ইউনিটও বরাদ্দ পায়না। যাদের যে পরিমাণ গ্যাস পাওয়ার কথা তার থেকে বেশি গ্যাস দেয়া হচ্ছে তাহলে এই বাড়তি গ্যাস কোথায় যাচ্ছে। বাড়তি সরবরাহ করা এই গ্যাস কালো বাজারে বিক্রি হচ্ছে বলেও জানান তিনি।

সিএনজি স্টেশন থেকেও গ্যাস বিক্রি হয়ে শিল্প কারখানায় যাচ্ছে বলেও জানান শামসুল আলম। তবে রাষ্ট্রের এই মুল্যবান সম্পত্তি শুধু যে চোরা পাইপেই অপচয় হচ্ছে তা কিন্তু নয়।

তীব্র গ্যাস ঘাটতি পূরণে আর ক'দিন বাদেই ভাসমান এলএনজি টার্মিনাল থেকে যোগ হবে দৈনিক ৫০ কোটি ঘনফুট আমদানি করা গ্যাস।   শুধু তিতাসের অপচয় পোষাতেই ২ মাস ১৩ দিন টানা গ্রিড লাইনে এই গ্যাস দিতে হবে।

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, অপচয় কমানোর পাশাপাশি দেশিও গ্যাস দিয়েই চাহিদা মেটানো যেত। তবে সেখানেও পিছিয়ে সরকার।

জ্বালানি বিশেষজ্ঞ বদরুল ইমাম বলেন, 'এই ৭০ বছরে অনুসন্ধান কূপের সংখ্যা ৭০টি অর্থাৎ বছরে একটি করে, আন্তর্জাতিক মানদন্ডে এটি কোন অনুসন্ধানই নয় বলেও জানান তিনি।'

আমদানি করা প্রতি ঘনফুট গ্যাসের খরচ পড়বে ২৫ টাকা। বাড়তি দাম সমন্বয় করতে এরই মধ্যে গণশুণানির মাধ্যমে দাম বাড়ানোর প্রক্রিয়া শুরু করেছে বিইআরসি।

আরও পড়ুন

বিমানবন্দরে আটক হওয়া পিস্তল পুলিশি তদন্তে খেলনা পিস্তল হিসেবে উল্লেখ

কাস্টমস হাউজের বর্ণনায় আসল পিস্তল হলেও পুলিশি তদন্তে তা খেলনা পিস্তল হিসেবে উল্লেখ করা হয়েছে। দুই বছর আগে শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে এই পিস্তল উদ্ধারের সম...

'সবুজ সংকেতের অপেক্ষায় বিএনপির অনেক নেতাকর্মী'

বিএনপি থেকে অনেকেই আওয়ামী লীগে যোগ দিতে অধীর আগ্রহে অপেক্ষা করছে। আমাদের সভানেত্রী শেখ হাসিনার ক্লিয়ারেন্স পেলে, একটু সবুজ সংকেত পেলেই সারা দেশে বিএনপির বিপুল ন...

চামড়াবিহীন জুতা তৈরিতে ঝুঁকছে উৎপাদকরা

বিশ্ববাজারে চাহিদা থাকায়, ফুটওয়্যার উৎপাদক প্রতিষ্ঠানগুলো ধীরে ধীরে চামড়াবিহীন জুতা তৈরিতে ঝুঁকছে। দেশে প্রতিবছর অন্তত ৩ থেকে ৪ টি কোম্পানি উৎপাদনে আসছে। ২০২১ স...

বিনিয়োগকারীদের লভ্যাংশ না দেয়ায় তদন্ত করছে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ

দীর্ঘ সময় বিনিয়োগকারীদের লভ্যাংশ দিচ্ছে না এমন প্রতিষ্ঠান সম্পর্কে তদন্ত করছে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ। এর মধ্যে আর্থিকভাবে দুর্বল ৫টি কোম্পানির কার্যক্রম সরেজমিনে প...