DBC News
সোহেল তাজের ফেরার অপেক্ষায় কাপাসিয়াবাসী

সোহেল তাজের ফেরার অপেক্ষায় কাপাসিয়াবাসী

দীর্ঘ সময় রাজনীতি থেকে দূরে থাকা সোহেল তাজের ফেরার অপেক্ষায় এখনো দিন গুণছে গাজীপুরের কাপাসিয়ার মানুষ। সম্প্রতি তিনি, ফেসবুকে পোস্ট দিয়েছেন, জন্মভূমির জন্য কিছু করার আছে, ঈদের পর জানানো হবে। এরপর থেকেই তাঁর ফেরার বিষয়ে গুঞ্জন শুরু হয়েছে এলাকাবাসীর মধ্যে।

২০০৯ সালে আওয়ামী লীগ সরকারের স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রীর দায়িত্ব পান দেশের প্রথম প্রধানমন্ত্রী ও স্বাধীনতা সংগ্রামের অন্যতম নেতা তাজউদ্দিন আহমদের ছেলে তানজিম আহমেদ সোহেল তাজ। কিন্তু মাত্র পাঁচ মাস পরই ব্যক্তিগত কারণ দেখিয়ে মন্ত্রিত্ব ছাড়েন তিনি। চলে যান যুক্তরাষ্ট্রে।

কয়েকবার দেশে এলেও জনসম্মুখে তেমন আসেননি সোহেল তাজ। সবশেষ ২০১৭ সালের ডিসেম্বরে কাপাসিয়ায় যান মায়ের নামে একটি হাসপাতাল উদ্বোধন করতে। তখন তিনি বলেছিলেন, এই মুহূর্তে রাজনীতি নয়, মানুষের উন্নয়নেই কাজ করতে চান তিনি। 
 
সম্প্রতি সোহেল তাজের ফেসবুকে একটি পোস্ট নিয়ে নতুন করে আলোচনা শুরু হয়েছে কাপাসিয়াবাসীর মধ্যে। তিনি রাজনীতিতে ফিরবেন এমন আশা করছেন সবাই।

গত ৩১ মে বাংলাদেশের প্রথম প্রধানমন্ত্রী তাজউদ্দীন আহমদের ছেলে সোহেল তাজ ফেসবুক পেজে নিজের একটি ছবি দিয়ে লিখেন, ‘বেশ কিছু দিন ধরে ভাবছি আমার জন্মভূমি, মাতৃভূমি বাংলাদেশের জন্য ভালো কিছু কী করা যায় এবং বিশেষ করে যুব সমাজের জন্য পজিটিভ কিছু করা যায় কি না। অনেক চিন্তাভাবনা করে একটা সমাধান পেয়েছি—ঈদের পর জানাবো !!’ তিনি আরও লেখেন, ‘অনেকেই কমেন্ট করছেন যে আমার দেশে আসা উচিত- আমি বেশিরভাগ সময়ই দেশে থাকি।’

স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতারাও বলছেন,  সোহেল তাজ রাজনীতিতে ফিরলে তাদের জন্য অনেক বড় পাওয়া হবে।

কাপাসিয়াবাসী অপেক্ষা করছেন, ঈদের পর কী চমক নিয়ে ফিরছেন তাদের প্রাণপ্রিয় এই নেতা তা দেখার।

উল্লেখ্য, ২০০৯ সালের ৬ই জানুয়ারি শেখ হাসিনার মন্ত্রিসভায় স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রীর দায়িত্ব নিলেও ২০০৯ সালের ৩১ মে তিনি মন্ত্রিসভা থেকে পদত্যাগ করেন। পদত্যাগপত্র গ্রহণ না করায় ২০১২ সালের ১৭ই এপ্রিল মন্ত্রিপরিষদ বিভাগে তিনি চিঠি দেন। চিঠিতে তিনি পদত্যাগ সংক্রান্ত প্রজ্ঞাপন জারি এবং সেই সময় থেকে তার ব্যক্তিগত হিসাবে পাঠানো বেতন-ভাতার যাবতীয় অর্থ ফেরত নেয়ারও অনুরোধ জানান। ২০১২ সালের ২৩শে এপ্রিল সংসদ সদস্য পদ থেকেও পদত্যাগ করেন সোহেল তাজ। তিনি ২০০৮ সালের নির্বাচনে গাজীপুর-৪ আসন থেকে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন।