DBC News
জি-সেভেন আউটরিচ সম্মেলনে যোগ দিতে কানাডায় পৌঁছেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

জি-সেভেন আউটরিচ সম্মেলনে যোগ দিতে কানাডায় পৌঁছেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

কানাডার স্থানীয় সময় শুক্রবার সকাল ৯টায় টরন্টোর পিয়ারসন আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে পৌঁছান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

এ সময় বিমানবন্দরে, কানাডায় বাংলাদেশের কনসাল জেনারেল নাঈম উদ্দিন আহমেদ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে স্বাগত জানান।

আজ কুইবেকের লা মানোয়া রিশেলো হোটেলে জি-সেভেন আউটরিচ লিডার্স প্রোগ্রামে যোগ দেবেন প্রধানমন্ত্রী। 

জি-সেভেন আউটরিচ সম্মেলনে যোগ দিতে শেখ হাসিনা ছাড়াও কয়েকটি দেশের সরকার প্রধান ও আন্তর্জাতিক সংস্থাকে আমন্ত্রণ জানিয়েছে কানাডা সরকার। 

এছাড়া স্থানীয় সময় শুক্রবার সন্ধ্যায় প্রধানমন্ত্রী জি-সেভেন শীর্ষ সম্মেলন ও আউটরিচ অধিবেশনে যোগ দিতে আসা রাষ্ট্র ও সরকার প্রধানদের সম্মানে কানাডার গভর্নর জেনারেলের দেয়া এক নৈশভোজে অংশ নেন। 

এর আগে জি-সেভেন আউটরিচ সম্মেলনে যোগ দিতে বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায়, চারদিনের সফরে এমিরেটস এয়ারওয়েজের একটি ফ্লাইটে ঢাকা ত্যাগ করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

কানাডার প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডোর আমন্ত্রণে প্রধানমন্ত্রী এই সফরে যাচ্ছেন। এবার তৃতীয়বারের মত আউটরিচ সম্মেলনে অংশ নেবেন প্রধানমন্ত্রী।

এবারের জি-সেভেন আউটরিচ সম্মেলনে রোহিঙ্গা সংকট নিয়ে আলোচনা হবে। বাংলাদেশ ও কানাডার যৌথ উদ্যোগে এ আলোচনা অনুষ্ঠিত হবে। 

কানাডার কুইবেকের লা মালবাইয়ে আগামী ৮ ও ৯ই জুন ৪৪তম জি-সেভেন শীর্ষ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হবে। সাতটি দেশের জোট জি-সেভেন এর সদস্য দেশগুলো হচ্ছে— যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য, কানাডা, ফ্রান্স, জার্মানি, জাপান ও ইতালি। 

এবারের জি-সেভেন সম্মেলনে স্থিতিশীল উপকূল ও মানবগোষ্ঠী কীভাবে গড়ে তোলা যায়, সমুদ্রবিষয়ক জ্ঞান ও বিজ্ঞান শেয়ার এবং টেকসই সমুদ্র ও মৎস্য শিকারে সহায়তার বিষয়ে আলোচনার জন্য এই নেতারা ও আন্তর্জাতিক সংস্থাসগুলোর প্রধানগণ জি-সেভেন নেতাদের সঙ্গে বৈঠক করবেন।

এছাড়া সমুদ্রগুলো ও সমুদ্র উপকূলগুলো ক্রমবর্ধমান প্লাস্টিক দূষণ, আরও ঘন ঘন ও মারাত্মক আবহাওয়াগত সমস্যা এবং অবৈধ, অজ্ঞাত ও অনিয়ন্ত্রিত মৎস্য শিকারের মতো গুরুত্বপূর্ণ হুমকির মধ্যে রয়েছে। বিকাশমান অর্থনীতির জন্য স্থিতিশলী উপকূলীয় গোষ্ঠী ও স্বাস্থ্যকর সমুদ্র অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ যা সবার জন্য ফলদায়ক এবং এ কারণে আমরা বিশ্বের সমুদ্রগুলো রক্ষার জন্য অন্যদের সঙ্গে কাজ করতে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ।

এছাড়া ভবিষ্যৎ প্রজন্মের জন্য স্থিতিশীলতা জোরদারে, জলবায়ু পরিবর্তনের বিষয় মোকাবিলা এবং আমাদের সমুদ্রগুলো রক্ষায় কানাডা জি-৭ ও এর বাইরে অন্য দেশগুলোর সঙ্গে কাজ করতে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ। জি-সেভেন এ কানাডার সভাপতিত্বে লিঙ্গ সমতা ও নারীর ক্ষমতায়নের বিষয় গুরুত্বসহকারে আলোচনার জন্য অন্তর্ভুক্ত করা হবে।

সম্মেলনের ফাঁকে অন্যান্য দেশের নেতাদের সঙ্গে বৈঠক করার কথা রয়েছে প্রধানমন্ত্রীর। সেখানে বঙ্গবন্ধুর খুনি মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত নূর চৌধুরীকে ফেরত আনার বিষয়ে আলোচনা করবেন প্রধানমন্ত্রী।

সর্বশেষ ২০১৬ সালে জাপানে অনুষ্ঠিত জি৭-এর আউটরিচ অনুষ্ঠানে বিশেষ আমন্ত্রণে যোগ দিয়েছিলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সম্মেলন শেষে ১২ই জুন প্রধানমন্ত্রীর ঢাকায় ফেরার কথা রয়েছে।

আরও পড়ুন

কর্ণফুলী টানেলের মূল নির্মাণকাজ শুরু রবিবার

চট্টগ্রামে কর্ণফুলী নদীর তলদেশে মূল টানেলের নির্মাণকাজ শুরু হচ্ছে রবিবার। টানেল বোরিং মেশিন চালু ও এলিভেটেড এক্সপ্রেসওয়ের পিলার পাইলিং প্রকল্পের উদ্বোধন করবেন প...

'আবাসিক ভবনে রাসায়নিক থাকলে কঠোর ব্যবস্থা'

পুরান ঢাকার আবাসিক ভবনে রাসায়নিক দ্রব্য পাওয়া গেলে কঠোর ব্যবস্থা নেয়ার ঘোষণা দিয়েছেন, ঢাকা দক্ষিণ সিটির মেয়র সাঈদ খোকন।  পুরান ঢাকাকে নিরাপদ আবাসস্থল করতে...

মালয়েশিয়ায় এক বাংলাদেশির ২০ বছর কারাদণ্ড

মালয়েশিয়ার এক নারীকে ছুরিকাঘাতের দায়ে বাংলাদেশি এক ব্যক্তিকে ২০ বছরের কারাদণ্ড দিয়েছে দেশটির একটি আদালত। শুক্রবার এ রায় দেয়া হয়। গত ১২ই ফেব্রুয়ারি বিকেলে রাজধান...

'৮ লাখ রোহিঙ্গাকে ফেরানোর চেষ্টা চলছে'

১২ লাখের মধ্যে ৮ লাখ রোহিঙ্গাকে ফেরত পাঠানোর চেষ্টা চলছে বলে জানিয়েছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ডক্টর এ কে আব্দুল মোমেন। আজ শনিবার দুপুরে সিলেটে মডেল হাইস্কুলের বার্ষিক...