DBC News
ব্যাংকের কর কমানো ভ্রান্ত পদক্ষেপ

ব্যাংকের কর কমানো ভ্রান্ত পদক্ষেপ

প্রতিবারের মত এবারেও অর্থমন্ত্রীর বাজেট প্রস্তাবনার পরদিন আনুষ্ঠানিক প্রতিক্রিয়া জানিয়েছে গবেষণা সংস্থা সেন্টার ফর পলিসি ডায়ালগ-সিপিডি। এবারের বাজেটে উচ্চবিত্তের তুলনায় মধ্যবিত্তের ওপর করের বোঝা বেশি চাপানো হয়েছে বলে জানায় সংস্থাটি।  

তারা বলছে, করমুক্ত আয়সীমা বাড়েনি নতুন বাজেটে। কেবলমাত্র ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানের কর্পোরেট কর কমেছে আড়াই শতাংশ।' সরকারের এমন সিদ্ধান্তকে 'ভ্রান্ত পদক্ষেপ' বলে মন্তব্য করেছে সিপিডি।   

সিপিডি'র সম্মাননীয় ফেলো ড. দেবপ্রিয় ভট্টাচার্য্য বলেন, জিডিপি প্রবৃদ্ধি বাড়লেও, তা আয় বৈষম্য কমাতে কোন ভূমিকা রাখতে পারছেনা। বাজেটে মূল্যস্ফীতির লক্ষ্যও ধরে রাখা কঠিন। গেল পাঁচ বছরে ভালো প্রবৃদ্ধি বাড়লেও আয়ের বৈষম্য বেড়েছে। গরিব মানুষের সঞ্চয় করার ক্ষমতা কমেছে।

২০১৮-১৯ অর্থবছরের প্রস্তাবিত বাজেটকে 'নবীন বাংলাদেশের জন্য প্রবীণ বাজেট' বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

তিনি বলেন, 'ই-কমার্সে তরুণদের সুবিধা দেয়ার ক্ষেত্রে ৫ শতাংশ করারোপ করা হয়েছে। এছাড়া উবার পাঠাওয়ের ক্ষেত্রেও করারোপ করা হয়েছে। যা গ্রাহকের ঘাড়ে পড়বে।'

নির্বাচনী বাজেট কী না এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, এটা রাজনৈতিক অর্থনীতির বাজেট। কারণ বাজেট অর্থায়নে যারা সহয়োগিতা করবে তাদের সুবিধা দেয়া হচ্ছে। এটি নবীন বাংলাদেশের জন্য প্রবীণ বাজেট।

দেবপ্রিয় ভট্টাচার্য্য জানান, রোহিঙ্গাদের জন্য কী পরিমাণ অর্থ খরচ হচ্ছে সেরকম কোনো আর্থিক মূল্যায়ন করা হয়নি। সঞ্চয়পত্রের ওপর চাপ কমিয়ে ব্যাংকিং খাতকে চাঙ্গা করা উচিত ছিল। কিন্তু এই ঘোষিত বাজেটকে দেখে মনে হচ্ছে সঞ্চয়পত্রের দিকে ঝুঁকতে হবে।

সঞ্চয়পত্র ও ব্যাংক থেকে ঋণ নিয়ে বাজেটে ঘাটতি পূরণ করাকে 'শাঁখের করাত' বলছে সংস্থাটি।


তবে মোটরবাইক, মোবাইল ফোন ও ওষুধের স্থানীয় উৎপাদনকে উৎসাহিত করা হয়েছে বাজেটে। যা কর্মসংস্থান ও বিনিয়োগের জন্য ইতিবাচক। অন্যদিকে, ভার্চুয়াল ব্যবসায় ৫ শতাংশ কর- দেশের বিকাশমান একটি খাতকে বাধাগ্রস্ত করবে মনে করে সংস্থাটি।

বাজেটে কালো টাকা সাদা করার সুযোগের বিরোধিতা করেছে সিপিডি। এর আগেও এই উদোগ্যে কোনো অর্থ মূলধারায় ফেরত আনা সম্ভব হয়নি।

বৃহস্পতিবার চার লাখ ৬৪ হাজার ৫৭৩ কোটি টাকার বাজেট উপস্থাপন করেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত। বর্তমান সরকারের দ্বিতীয় মেয়াদের এটিই শেষ বাজেট। গত অর্থবছরের বাজেট ছিল চার লাখ ২৬৬ কোটি টাকা।

আরও পড়ুন

কারাগার থেকে মুক্তি পেলেন আলোকচিত্রী শহিদুল আলম

১০৭ দিন কারাভোগের পর মুক্তি পেয়েছেন আলোকচিত্রী ড. শহিদুল আলম। মঙ্গলবার রাত পোনে ৯টার দিকে কেরানীগঞ্জের ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগার থেকে জামিনে মুক্তি পান ড. শহিদুল আ...

'বর্ণচোরাদের ব্যালটের মাধ্যমে প্রত্যাখান করবে জনগণ'

যাঁরা এখনো মুজিব কোট পড়েন, বঙ্গবন্ধুর কথা বলেন, তাঁরা বঙ্গবন্ধুর খুনিদের সঙ্গে এবং খুনিদের পৃষ্ঠপোষকদের সঙ্গে হাত মিলিয়েছেন। এর বিচার ৩০শে ডিসেম্বর দেশের জনগণ ত...

বিনিয়োগকারীদের লভ্যাংশ না দেয়ায় তদন্ত করছে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ

দীর্ঘ সময় বিনিয়োগকারীদের লভ্যাংশ দিচ্ছে না এমন প্রতিষ্ঠান সম্পর্কে তদন্ত করছে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ। এর মধ্যে আর্থিকভাবে দুর্বল ৫টি কোম্পানির কার্যক্রম সরেজমিনে প...

এক দশকে উন্নয়ন বাজেট বেড়েছে প্রায় ৬ গুণ

গেল ১০ বছরে বাজেট চার গুণ বাড়লেও উন্নয়ন বাজেটের আকার বেড়েছে প্রায় ৬ গুণ। ভৌত অবকাঠামো থেকে শুরু করে আর্থ সামাজিক উন্নয়নে সরকার বড় অংকের টাকা খরচ করেছে। ফলে তা ভ...