DBC News
কিম জং উনকে হোয়াইট হাউজে ডাকবেন ট্রাম্প

কিম জং উনকে হোয়াইট হাউজে ডাকবেন ট্রাম্প

সিঙ্গাপুরের বৈঠক সফল হলে উত্তর কোরিয়ার নেতা কিম জং উন কে হোয়াইট হাউজে আমন্ত্রণ জানাবেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প।

বৃহস্পতিবার ১২ই জুনের সম্ভাব্য ওই সম্মেলনের বিষয়ে জাপানের প্রধানমন্ত্রী শিনজো আবের সাথে বৈঠকে এ কথা বলেন তিনি। এ সময় কোরীয় যুদ্ধের পরিসমাপ্তি ঘটানো ওই সম্মেলনের সবচেয়ে সহজ অংশ বলে মন্তব্য করেন তিনি। 

ট্রাম্প আরো বলেন, বৈঠকের পর যা ঘটবে তা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। যুক্তরাষ্ট্র দীর্ঘদিন ধরে উত্তর কোরিয়ার ওপরে ‘সর্বোচ্চ চাপ’ প্রয়োগ করলেও  ট্রাম্প বলেছেন, এই নীতি এখন আর ব্যবহার করতে চান না তিনি। উত্তর কোরিয়ার সঙ্গে বন্ধুত্বপূর্ণ আলোচনা চলছে বলেও জানান তিনি।

গত এপ্রিলে উত্তর ও দক্ষিণ কোরিয়ার মধ্যে উত্তেজনার অবসানের পর ট্রাম্পের সঙ্গে কিমের বৈঠক ঘোষিত হয়। কিন্তু ক’দিন আগে আকস্মিকভাবে ট্রাম্প এই বৈঠক বাতিলের ঘোষণা দেন।

কিন্তু পরিবর্তিত পরিস্থিতিতে ওয়াশিংটন ও পিয়ংইয়ং পূর্ব নির্ধারিত সময়েই ওই বৈঠক আয়োজনের জন্য নতুন প্রস্তুতি শুরু করে। ওই বৈঠক নিয়ে কথা বলতেই গত শুক্রবার হোয়াইট হাউজে উত্তর কোরিয়ার প্রতিনিধি দলের সাথে সাক্ষাৎ করে ট্রাম্প।

এরআগে, কিম জং উনের দেয়া চিঠি নিয়ে হোয়াইট হাউজে ট্রাম্পের সাথে সাক্ষাৎ করেন দেশটির দূত জেনারেল কিম চোল। বৈঠক শেষে ট্রাম্প জানান, কিমের চিঠিটি বেশ আকর্ষর্ণীয় ছিল। এরমধ্যে ফলপ্রসূ আলোচনা করার বেশ কয়েকটি বিষয়ও রয়েছে।

এছাড়া নিউইয়র্ক স্থানীয় সময় বুধবার বৈঠক করেন মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেও এবং উত্তর কোরীয় শীর্ষস্থানীয় কর্মকর্তা কিম ইয়ং চোল। ২০০০ সালের পর দুই দশকের মধ্যে চোলই হলেন যুক্তরাষ্ট্র সফর করা উত্তর কোরিয়ার শীর্ষ ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা।

আসন্ন ট্রাম্প-কিম বৈঠক নিয়ে শীর্ষ মার্কিন কর্মকর্তাদের সঙ্গে আলোচনা করতে নিউইয়র্ক আসেন উত্তর কোরিয়ার ক্ষমতাসীন ওয়ার্কার্স পার্টির ভাইস চেয়ারম্যান কিম। গত ১৮ বছরের মধ্যে কিম ইয়ং চোলই উত্তর কোরিয়ার সবচেয়ে জ্যেষ্ঠ নেতা যিনি যুক্তরাষ্ট্রে সে দেশের নেতাদের সঙ্গে বৈঠক করলেন।