DBC News
নতুন বাজেটে প্রবৃদ্ধি ৭.৮%

নতুন বাজেটে প্রবৃদ্ধি ৭.৮%

৭ দশমিক ৮ শতাংশ প্রবৃদ্ধির লক্ষ্যমাত্রা থাকছে নতুন অর্থবছরের বাজেটে। অর্থ মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা গেছে, বাজেটের আকার হবে চার লাখ ৬৪ হাজার ৫৭৩ কোটি টাকা। আর রাজস্ব আয়ের লক্ষ্যমাত্রা থাকবে তিন লাখ ৩৯ হাজার ২৮০ কোটি টাকা।

'সমৃদ্ধ আগামীর পথযাত্রায় বাংলাদেশ'। এই দর্শনে বৃহস্পতিবার ২০১৮-১৯ অর্থবছরের বাজেট দেবেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত।  নতুন বাজেটে প্রবৃদ্ধির লক্ষ্যমাত্রা হতে যাচ্ছে ৭ দশমিক ৮ শতাংশ।

২০১৭-১৮ অর্থবছর- ৭.৪%

২০১৮-১৯ অর্থবছর- ৭.৮%

বাজেটের আকার হবে ৪ লাখ ৬৪ হাজার ৫৭৩ কোটি টাকা।

২০১৭-১৮ অর্থবছর- ৪ লাখ ২৬৬ কোটি টাকা।

২০১৮-১৯ অর্থবছর- ৪ লাখ ৬৪ হাজার ৫৭৩ কোটি টাকা

আগামী অর্থবছরের জন্য মোট রাজস্ব আয়ের লক্ষ্যমাত্রা থাকবে ৩ লাখ ৩৯ হাজার ২৮০ কোটি টাকা।

২০১৭-১৮ অর্থবছর - ২ লাখ ৮৭ হাজার ৯৯১ কোটি টাকা।

২০১৮-১৯ অর্থবছর - ৩ লাখ ৩৯ হাজার ২৮০ কোটি টাকা।

মূল্যস্ফীতির লক্ষ্যমাত্রা হচ্ছে ৫.৬%।

২০১৭-১৮ অর্থবছর- ৫.৫%

২০১৮-১৯ অর্থবছর- ৫.৬%

আগামী বাজেটে মূল বার্ষিক উন্নয়ন কর্মসূচির মূল এডিপি আকার ধরা হচ্ছে ১ লাখ ৭৯ হাজার ৬৬৯ কোটি টাকা।

২০১৭-১৮ অর্থবছর- ১ লাখ ৫৩ হাজার ৩৩১ কোটি টাকা।

২০১৮-১৯ অর্থবছর- ১ লাখ ৭৯ হাজার ৬৬৯ কোটি টাকা।

এতকিছুর পরেও প্রতিবারের মতো এবারও মোট বাজেটের চার ভাগের এক ভাগ টাকাই অর্থমন্ত্রীকে ধার করতে হবে। নতুন বাজেট দিতে তাঁকে ধার করতে হবে অনুদানসহ ১ লাখ ২১ হাজার ২৪২ কোটি টাকা।

২০১৭-১৮ অর্থবছর- ঘাটতি বাজেট  ১ লাখ ৬ হাজার ৭৭২ কোটি টাকা।

২০১৮-১৯ অর্থবছর- ১ লাখ ২১ হাজার ২৪২ কোটি টাকা।

জাতীয় বাজেটের বড় একটি অংশ ব্যয় হয় ঋণের সুদ পরিশোধে।  সুদ বাবদ ব্যয় এখন বাজেটের সর্বোচ্চ একক খাত।  এটি মোট বাজেটের ১৮ শতাংশের বেশি।আসন্ন বাজেটে সুদপরিশোধে মোট বরাদ্দ থাকবে ৫১ হাজার ৩৪০ কোটি টাকা।

২০১৭-১৮ অর্থবছর-  ৪৯ হাজার কোটি টাকা।

২০১৮-১৯ অর্থবছর- ৫১ হাজার ৩৪০ কোটি টাকা।

আগামী অর্থবছরের জিডিপির আকার ধরা হচ্ছে ২৫ লাখ ৩৭ হাজার ৮৪৯ কোটি টাকা।