DBC News
১৩ই জুনের টিকিটের জন্য প্রত্যাশীদের ভিড়

১৩ই জুনের টিকিটের জন্য প্রত্যাশীদের ভিড়

ঈদকে সামনে রেখে সোমবার সকাল ৮টা থেকে দেয়া শুরু হয়েছে ১৩ই জুনের ট্রেনের আগাম টিকিট বিক্রি। সকাল থেকেই স্টেশনে টিকিট প্রত্যাশীদের ভিড় বাড়তে থাকে। বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে এ ভিড় স্টেশন চত্বরকেও ছাড়িয়ে যায়।

অনেকেই রবিবার ইফতারের পর থেকেই কমলাপুর রেল স্টেশনে টিকেটের জন্য অপেক্ষা করছেন। টিকেটের জন্য কেউ কেউ আবার অপেক্ষা করেছেন ২০ ঘন্টারও বেশি সময়। সবাই যেনো শৃঙ্খলা রক্ষা করে টিকিট পায় সে জন্য টিকিট প্রত্যাশীদের টোকেন সংগ্রহ করতে দেখা গেছে। 

এদিকে কালোবাজারে টিকিট বিক্রি বন্ধ করতে পুরো স্টেশন আইন-শৃংখলা বাহিনীর নিয়ন্ত্রণে রয়েছে। সিসি টিভিতে নজর রাখা হয়েছে।  এছাড়াও দায়িত্ব পালন করছে পুলিশ, র‌্যাব ও  আনসার সদস্যরা।

কমলাপুর রেলস্টেশন ম্যানেজার সীতাংশু চক্রবর্তী বলেন, 'আগাম টিকিট বিক্রিতে রেলওয়ে কর্তৃপক্ষের কোনো ত্রুটি নেই।' এবারে সীমিত টিকিট বিক্রি করা হচ্ছে। তবু আগাম টিকিট বিক্রিতে এখন পর্যন্ত কোন অনিয়ম হয়নি'

রেলপথমন্ত্রী জানিয়েছেন, ঈদ উপলক্ষ্যে অতিরিক্ত যাত্রী বহন ও নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে সব ধরণের ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে।

তিনি জানান, এবারে ১৭৫টি অতিরিক্ত যাত্রীবাহী বগিসহ ১৮টি ঈদ স্পেশাল ট্রেন চলবে। তবে ঢাকা-কলকাতাগামী মৈত্রী এক্সপ্রেস ট্রেনটি ঈদ উপলক্ষ্যে বন্ধ থাকবে।

এবারের ঈদে ঢাকা-খুলনা রুটে মৈত্রী এক্সপ্রেস ট্রেনটি খুলনাবাসীর জন্য বিশেষ উপহার হিসেবে ছাড়া হয়েছে জানিয়ে মন্ত্রী বলেন, ১৩ থেকে ১৫ই জুন পর্যন্ত ঢাকা-খুলনা রুটে চলবে। এই ট্রেনে কোনো অতিরিক্ত যাত্রী বহন করা হবে না জানিয়ে রেলমন্ত্রী বলেন, অত্যন্ত নিরাপত্তার মধ্য দিয়ে ট্রেনটি চালানো হবে।