DBC News
বাজেটে চীনা বিনিয়োগে কর ছাড়ের দাবি ডিএসই'র

বাজেটে চীনা বিনিয়োগে কর ছাড়ের দাবি ডিএসই'র

চীনা কৌশলগত বিনিয়োগকারীদের থেকে পেতে যাওয়া প্রায় হাজার কোটি টাকা পুঁজিবাজারেই বিনিয়োগ করবে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের শেয়ারহোল্ডাররা। এজন্য অর্থমন্ত্রীর কাছে এই অর্থের ওপর ধার্য থাকা ১৫ শতাংশ করের অব্যাহতি চেয়েছেন তারা। 

শর্ত অনুযায়ী, নূন্যতম এক বছর পর্যন্ত এই অর্থ বাজারে থাকবে। নতুন বাজেটে পুঁজিবাজারের জন্য এমন দাবি জানায় ডিএসই ও ডিএসই ব্রোকার্স এসোসিয়েশনের নেতারা।

গতবারের বাজেট বক্তৃতায় পুঁজিবাজার নিয়ে খুব একটা মাথা ঘামাননি অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত। একদম সংক্ষিপ্ত বক্তব্যে শেষ করেছিলেন এই অধ্যায়। তবে যা যা বলেছেন- তার বেশিরভাগই এখনো কার্যকর হয়নি।

  • পুঁজিবাজারের নতুন বিনিয়োগ পণ্য এখনো ইটিএফ চালু করা হয়নি।
  • ক্লিয়ারিং অ্যান্ড সেটেলমেন্ট কোম্পানি প্রতিষ্ঠা এখনো প্রক্রিয়াধীন।
  • স্টক এক্সচেঞ্জের জন্য কৌশলগত অংশীদার সংগ্রহ ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ, ডিএসই'র করা হয়েছে কিন্তু চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জ, সিএসই'র এখনো করা হয়নি।
ডিবিএ'র সাবেক সভাপতি আহমেদ রশীদ লালী বলেন, গেল বাজেটে নীতি সহায়তা না থাকার ফলে আশাব্যাঞ্জক কোনো পরিবর্তন ঘটেনি পুঁজিবাজারে। তবে এবার বাজার উন্নয়নে অর্থমন্ত্রীর কাছে তাদের মূল দাবি কর অব্যাহতি। 

তবে এখন দাবি তুলে সেই নীতি সহায়তা আসছে বাজেটে পাওয়ার সুযোগ নেই। বাজেট পরবর্তী অর্থবিলে বা আলাদা প্রজ্ঞাপনে সেটি পাওয়া যেতে পারে।

নতুন বাজেটে পুঁজিবাজারের তালিকাভুক্ত কোম্পানির ক্ষেত্রে কর্পোরেট কর কমবে আড়াই শতাংশ।