DBC News
'সরকারের ধারাবাহিকতায় দেশ আজ উন্নত'

'সরকারের ধারাবাহিকতায় দেশ আজ উন্নত'

'সরকারের ধারাবাহিকতায় দেশ আজ উন্নত' বললেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। আজ রবিবার সকাল ১০টায় গণভবনে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে ‘শেখ হাসিনা ধরলা সেতু' উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে সূচনা বক্তব্যে এ কথা বলেন প্রধানমন্ত্রী।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, 'আওয়ামী লীগ সরকার ক্ষমতায় থাকলেই দেশের উন্নয়ন হয়। পর পর দুবার ক্ষমতায় থেকে দেশের উন্নয়ন করেছি।সরকারের আন্তরিকতা ও ধারাবাহিকতা থাকলে একটা দেশ উন্নত হতে পারে, তা এখন প্রমাণিত।'

প্রধানমন্ত্রী আরো বলেন, প্রতিটি অঞ্চলকে পরিকল্পিতভাবে উন্নয়নের আওতায় আনতেই নিরলসভাবে কাজ করছে এ সরকার।  সকলকে যার যার জায়গা থেকে যথাযথভাবে দায়িত্ব পালনের আহ্বানও জানান তিনি। রংপুরের মানুষের জন্য দ্বিতীয় ধরলা নদী সেতু ঈদের উপহার বলেও মন্তব্য করেন প্রধানমন্ত্রী। 

তিনি বলেন, বাংলাদেশের প্রতিটি অঞ্চলে আমি গিয়েছি। সেখানকার মানুষের সমস্যার কথা শুনেছি। সরকারে আসার পর এসব মানুষের উন্নয়নে নানা উদ্যোগও নিয়েছি। ইনশাআল্লাহ, ২০৪১ সালের মধ্যে বাংলাদেশ হবে একটি উন্নত ও সমৃদ্ধশালী দেশ। এর সুফল ভোগ করবে দেশের মানুষ।

এসময় প্রধানমন্ত্রী ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে স্থানীয় জনসাধারণের সাথেও কথা বলেন।

২০১২ সালের ২০শে সেপ্টেম্বর সেতুটির নির্মাণ কাজের উদ্বোধন করেন প্রধামন্ত্রী শেখ হাসিনা। কুড়িগ্রাম এলজিইডির তত্ত্বাবধানে সম্পূর্ণ দেশীয় অর্থ ও প্রযুক্তিতে এই সেতুটির নির্মিত হয়েছে। ১৯১ কোটি টাকা ব্যয়ে ৯৫০ মিটার দীর্ঘ এই সেতুটি উত্তারাঞ্চলের দ্বিতীয় বৃহত্তম সড়ক সেতু। এই সেতুটি উত্তর ধরলার তিনটি ইউনিয়নসহ কুড়িগ্রাম ও লালমনিরহাট জেলার কমপক্ষে ২০ লাখ মানুষের আর্থ-সামাজিক উন্নয়নে বড় ভূমিকা পালন করবে।

৯৫০ মিটার দীর্ঘ ও ৯ দশমিক ৮০ মিটার চওড়া সেতুটির ১৯টি স্প্যান ও ৯৫টি গার্ডার রয়েছে। সেতুটি নির্মাণ করছে সিমপ্লেক্স এবং নাভানা কনষ্ট্রাকশন গ্রুপ। মূল সেতুর নির্মাণে ব্যয় হয়েছে ১৩১ কোটি ৫৮ লাখ টাকা। ফুলবাড়ী ও লালমনিরহাট অংশে ২ হাজার ৯১৯ মিটার সংযোগ সড়ক নির্মাণ বাবদ ১৩ কোটি ৯ টাকা, ৩ হাজার ৪৮০ মিটার নদী শাসনে ৪৩ কোটি ৫০ লাখ টাকা, ২ কোটি ৩৩ লাখ টাকা ব্যয়ে জমি অধিগ্রহণ করা হয়েছে ১৩ একর।