DBC News
ঈদে ট্রেনের আগাম টিকিট বিক্রি শুরু

ঈদে ট্রেনের আগাম টিকিট বিক্রি শুরু

শুক্রবার সকাল আটটা থেকে বিক্রি শুরু হলেও রাত থেকেই কমলাপুর স্টেশনে ভিড় করেছেন টিকিট প্রত্যাশীরা। 

কেউ মধ্যরাতে এসেছেন, আবার অনেকেই সেহেরি করেই চলে এসেছেন রেলস্টেশনে। ঈদে বাড়ি ফেরার টিকিট যাতে আগে-ভাগেই যেন হাতে পান সেজন্য রাতেই স্টেশনে এসে লাইনে দাঁড়ানোর কথা জানানা টিকিট প্রত্যাশীরা। 

এদিকে, চট্টগ্রামে শুরু হয়েছে ঈদ উপলক্ষে রেলওয়ে টিকেট বিক্রি। সকাল আটটা থেকে টিকেট বিক্রি হলেও রেলওয়ে স্টেশনে টিকেট প্রত্যাশী যাত্রীদের সংখ্যা ছিলো কম।

আজ দেয়া হচ্ছে ১০ জুনের টিকেট। প্রথম দিনে টিকেট ছাড়া হয়েছে ৪ হাজার ৯১৭টি।

টিকেট বিক্রির কার্যক্রম সুষ্ঠুভাবে পরিচালনার জন্য কাউন্টারের ভিতরে এবং বাহিরে কয়েকটি টিম কাজ করছে বলে জানিয়েছেন স্টেশন ম্যানেজার। আর কালোবাজারী রোধে লাগানো হয়েছে ৫৭ টি সিসিটিভি ক্যামেরা। পাশাপাশি টিকেট কালোবাজারী ঠেকাতে রেলওয়ে স্টেশন এলাকায় কাজ করছে নিরাপত্তা বাহিনী,জিআরপি, ডিবিপুলিশ। যাত্রীদের সুবিধার জন্য শনিবার থেকে প্রতিটি আন্ত:নগর ট্রেনে অতিরিক্ত বগি সংযোজন করা হবে ।

আগাম টিকিট বিক্রি চলবে ৬ই জুন পর্যন্ত। ২রা জুন দেয়া হবে ১১ই জুনের টিকেট। ৩রা জুন ১২ তারিখ ও ৪, ৫ ও ৬ই জুন দেয়া হবে ১৩, ১৪ ও ১৫ই জুনের অগ্রিম টিকিট। এছাড়া ফিরতি টিকিট বিক্রি হবে ১০ই জুন, চলবে ১৫ই জুন পর্যন্ত।

একজন যাত্রীকে একসঙ্গে সর্বোচ্চ চারটি টিকিট দেয়া হবে এবং এই টিকিট ফেরত নেয়া হবে না। কমলাপুর রেলস্টেশন থেকে ২৬টি কাউন্টার থেকে টিকিট বিক্রি চলছে। এর মধ্যে দুটি কাউন্টার নারীদের জন্য সংরক্ষিত। মোট টিকিটের ৭৫ শতাংশ কাউন্টারে এবং বাকি ২৫ শতাংশ টিকিট অনলাইনে বিক্রি করা হবে।

ঈদের আগে ১১ই জুন থেকে আন্তনগর ট্রেন সমূহ সাপ্তাহিক ছুটিতেও চলাচল করবে।

এবার ঈদে যাত্রীদের জন্য বিশেষ সাত জোড়া ট্রেনের ব্যবস্থা করা হয়েছে। এগুলো হলো ঢাকা-দেওয়ানগঞ্জ-ঢাকা রেলপথে দেওয়ানগঞ্জ স্পেশাল, চট্টগ্রাম-চাঁদপুর-চট্টগ্রাম রেলপথে চাঁদপুর স্পেশাল-১ ও চাঁদপুর স্পেশাল-২, রাজশাহী-ঢাকা-রাজশাহী রেলপথে রাজশাহী স্পেশাল, পার্বতীপুর-ঢাকা-পার্বতীপুর রেলপথে পার্বতীপুর স্পেশাল। এই পাঁচটি স্পেশাল ট্রেন ঈদের আগে ১৩ জুন থেকে ১৫ জুন পর্যন্ত চলবে। ঈদের পরে চলবে ১৮ জুন থেকে ২৪ জুন।

এ ছাড়া ঈদের দিন চলবে বাকি দুটি স্পেশাল ট্রেন। ভৈরববাজার-কিশোরগঞ্জ-ভৈরববাজার রুটে চলবে শোলাকিয়া স্পেশাল ১ ও ২ এবং ময়মনসিংহ-কিশোরগঞ্জ-ময়মনসিংহ রুটে চলবে শোলাকিয়া স্পেশাল ২।

ঈদুল ফিতর উপলক্ষ্যে যাত্রীসেবা নিশ্চিত করতে অতিরিক্ত বগি যুক্ত করবে রেলের পশ্চিমাঞ্চল ও পূর্বাঞ্চল। এছাড়া রেলবিভাগ অতিরিক্ত ১৫ হাজার যাত্রী চলাচলের ব্যবস্থা করেছে। রেলওয়েতে প্রতিদিন ২ লাখ ৬০ হাজার যাত্রী যাতায়াত করেন। এবার আরও ১৫ হাজার বেশি আসনের ব্যবস্থা করাও হয়েছে।