DBC News
সংসদীয় আসন ১০১-২০০
সংসদীয় আসন ২০১-৩০০

Video Express

সংসদীয় আসন- ২৩৪

সংসদ নির্বাচনের হিসেবে সিলেট-৬ আসনে আওয়ামী লীগ এগিয়ে থাকলেও এবার ঘুরে দাঁড়াতে প্রত্যয়ী বিএনপিও। বড় এ দু'টি দলের মনোনয়নের টিকিট পেতে তাই কাজ করে যাচ্ছেন একাধিক মনোনয়ন প্রত্যাশী। বিয়ানীবাজার ও গোলাপগঞ্জ উপজেলা নিয়ে সিলেট-৬ আসন। প্রবাসী বেশি বলে এলাকার মানুষের জীবনযাত্রার মান অনেকটা উন্নত হলেও বেশকিছু বেহাল সড়ক ভোগাচ্ছে ভোটারদের। এই আসনে তিনবারের নির্বাচিত সংসদ সদস্য শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ এবারও আওয়ামী লীগের মনোনয়নের ব্যপারে আশাবাদী। এছাড়াও দলীয় মনোনয়ন পেতে সক্রিয় রয়েছেন দলটির একাধিক নেতা। মনোনয়নের বিষয়ে শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ জানান, 'দলের মনোনয়ন বোর্ড আছে, আমাদের নেত্রী আছেন, তারা নির্ধারণ করবেন এখানে কে প্রার্থী হবেন। আগে থেকে কিছু বলার এখতিয়ার আমার নেই।' এলাকার উন্নয়নমূলক কর্মকান্ডের ব্যাপারে জানান, তার নির্বাচনী আসনে তিনি সাধ্যমত চেষ্টা করেছেন উন্নয়ন করার জন্য। এদিকে মনোনয়ন প্রত্যাশী কানাডা আওয়ামী লীগ সভাপতি সারওয়ার হোসেন বলেন, 'নেত্রী জনগণের পাশে থাকতে বলেছেন, সাধ্যমত কাজ করতে বলেছেন সে অনুযায়ী কাজ করছি। মনোনয়নের ব্যাপারে দলের সভাপতিই সিদ্ধান্ত নেবেন। দলীয় সভাপতি যে সিদ্ধান্ত নেবেন সেই সিদ্ধান্তই মেনে নেব আমরা।' আর সিলেট সিটি নির্বাচনে জয়ী হওয়ার পর আরও বেশি প্রত্যয়ী বিএনপির জেলা কমিটির নেতারা। তবে, এ আসনে দলীয় মনোনয়ন পেতে মাঠে রয়েছেন একাধিক নেতা। দলীয় মনোনয়ন প্রত্যাশী জেলা বিএনপি সভাপতি আবুল কাহের শামীম জানান, মনোনয়নের ব্যাপারে তিনি শতভাগ আশাবাদী। আবুল কাহের শামীম বলেন, 'আমি যদি মনোনয়ন পাই তাহলে এ আসনের জনগণ আমাকে ধানের শীষের পক্ষে নির্বাচিত করবে।' সিলেট জেলা ছাত্রদলের সাবেক আহ্বায়ক ফয়সল আহমদ চৌধুরী জানান, 'এখানে ধানের শীষ প্রতীকের প্রতি মানুষের আলাদা একটা ভালোবাসা আছে। দল যদি আমাকে এ আসন থেকে প্রতিনিধিত্ব করার সুযোগ দেয় তাহলে এলাকার জনগণ আমাকে নির্বাচিত করবে।' এলাকার জনগণের সঙ্গে তিনি দীর্ঘদিন ধরে কাজ করছেন বলেও জানান ফয়সল আহমদ চৌধুরী। কুশিয়ারা তীরের এই আসনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী চারবার এবং দুইবার করে বিএনপি, জাতীয় পার্টি ও স্বতন্ত্র প্রার্থী বিজয়ী হয়েছেন।

ইলেকশন এক্সপ্রেস

  • সিলেট - ৬